Home / ভোক্তা অধিকার / গায়েবী চাল

গায়েবী চাল

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণকৃত চালে ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ১৫নং কালীচরণপুর ইউনিয়নে। আজ রোববার দুপুরে কালীচরণপুর ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে এর সত্যতা পাওয়া যায়। এসময় কথা হয় কালীচরণপুর ইউনিয়নের ভিজিএফ কার্ডধারী মান্দারবাড়ীয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম, কালীচরণপুর গ্রামের শিবু, উত্তর কাস্টসাগরা গ্রামের সামসুদ্দিন, পয়মনা বেগমের সঙ্গে। তারা সবাই অভিযোগ করেন, সরকার আমাদের জন্য বরাদ্ধ করেছে ২০কেজি করে চাল। কিন্তু আমাদেরকে দেওয়া চাল ওজন করে দেখা যাচ্ছে সাড়ে ১৬কেজি, ১৭কেজি। এসময় চাল গ্রহীতারা বাজারের অন্য দোকানে ওজন করে চাল কম দেওয়ার বিষয়টি আমাদেরকে একাধিক গ্রহীতা নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, ঈদ উপলক্ষে সরকার অন্য ইউনয়নের ন্যায় কারীচরণপুর ইউনিয়নে ২৭,৮২০টন চাউল বরাদ্ধ করে।

যা ইউনিয়নে ১,৩৯১ জন হতদরিদ্রদের মাঝে ২০কেজি করে বিতরণ করার কথা। কিন্তু চেয়ারম্যান সেখানে ২০কেজির পরিবর্তে সাড়ে ১৬কেজি বা সাড়ে ১৭কেজি করে চাল বিতরণ করেছে। যা ২ থেকে ৩ কেজি কম দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে কালীচরণপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ দত্ত জানান, চাল আমি ছুঁয়েও দেখিনা। সব পরিষদের সচিব জানে। এভাবে দিয়ে যা থাকে কার্ড বাদে যে সব মানুষ আসে তাদের দিয়ে দিই। এ চাল আমি বাড়ী নিয়ে যায় না। জানতে চাইলে এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাম্মী ইসলাম বলেন, যদি ওজনে চাল কম দিয়ে থাকে তাহলে এটি ঠিক করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar