Home / অন্যান্য / অপরাধ / গুজব ছড়িয়ে আরেক তরুণী গ্রেপ্তার

গুজব ছড়িয়ে আরেক তরুণী গ্রেপ্তার

আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে ছাত্র হত্যা ও ধর্ষণের গুজব ছড়িয়ে আরও এক তরুণী আটক হয়েছেন নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে ।

শুক্রবার রাজধানীর পশ্চিম ধানমন্ডি এলাকা হতে ফারিয়া মেহজাবিন নামের ওই তরুণীকে আটক করে র‍্যাব-২ এর একটি দল।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাহিনীটির এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) রবিউল ইসলাম। জানান, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দলনকে ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিলেন ফারিয়া। তিনি ফেসবুকে মিথ্যা স্ট্যাটাস, উস্কানিমূলক তথ্য দিয়ে গুজব ছড়িয়েছিলেন। এ কারণে পশ্চিম ধানমন্ডি থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক নারীর ব্যবহৃত ব্যক্তিগত মোবাইল ও ফেসবুক আইডি জব্দ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান র‌্যাব কর্মকর্তা।

গত ৪ আগস্ট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে চারজন ছাত্রের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে এবং চারছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে ফেসবুকে গুজব ছড়ায় একাধিক ব্যক্তি।

সেদিন এই কথা ফেসবুক লাইভে এসে এবং সাক্ষাৎকারের মতো করে বানিয়ে বিভিন্ন আইডি থেকেই প্রচার করা হয়। আর এরপর স্কুল কলেজের পোশাক পরিহিত এবং ড্রেসছাড়া বেশ কিছু তরুণ ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে হামলা করে, সংঘর্ষ হয় দুই পক্ষে, ঝরে রক্ত।

আর এই কথা ছড়ানোর পেছনে যে অন্য উদ্দেশ্য ছিল, সেটাও স্পষ্ট। দেশের পাশাপাশি দেশের বাইরে থেকে ফেসবুক লাইভে এসে সবাইকে রাস্তায় নেমে এসে সরকার উৎখাতের আহ্বানও জানানো হয়।

তবে সন্ধ্যায় ছাত্রদের দুটি প্রতিনিধি দল আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয় ঘুরে এসে নিশ্চিত হয়, সেই প্রচার ছিল গুজব। আর এরপর থেকে তারা সড়কে অবস্থান ছেড়ে বাড়িতে ফিরে যায়।

ফেসবুক লাইভে ছাত্র মৃত্যুর গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার হয়েছেন অভিনেত্রী ও মডেল কাজী নওশাবা আহমেদ। দুই ছাত্রকে হত্যা মৃত্যু ও একজনকে চোখ তুলে নেওয়ার কথা বলে সবাইকে নেমে আসার আহ্বান জানিয়ে ফেসবুক লাইভে আসেন তিনি। দুই দফা রিমান্ড শেষে তিনি এখন ঢাকা কারাগারে।

অন্যদিকে কোটা সংস্কার আন্দোলন সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম-আহ্বায়ক লুৎফুন নাহার লুমাকে সিরাজগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার হয়। গোপালগঞ্জের মেয়ে লুমা শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পর পালিয়ে ছিলেন। তার বিরুদ্ধেও ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত বুধবার রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে নাজমুস সাকিব নামে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসের (ইউল্যাব) এক শিক্ষার্থী এবং কামরাঙ্গীরচরের জামিয়া নুরানিয়া মাদ্রাসার ছাত্র আহমাদ হোসাইনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গত ১৫ আগস্ট ঢাকা মহানগর পুলিশের এক হিসাবে জানানো হয়, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উস্কানি ও গুজব ছড়ানোর ৫১ মামলায় মোট ৯৭ জন গ্রেপ্তার হয়েছেন।

সম্প্রতি পুলিশ প্রধান জাবেদ পাটোয়ারি জানিয়েছেন, গুজব ছড়ানোর পেছনে তারা মোট ২১টি পোর্টাল চিহ্নিত করেছেন। তাদের সবার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar