Home / খবর / টিকিটসহ রেলের সব সেবা অ্যাপসে মিলবে

টিকিটসহ রেলের সব সেবা অ্যাপসে মিলবে

রেলওয়ে অ্যাপস রেলওয়ে টিকিট কাটাসহ ঝামেলা মুক্ত সকল সেবা পেতে খুব শিগগির চালু হতে যাচ্ছে ।

রবিবার (২৪ মার্চ) রাজধানীর রেল ভবনে আয়োজিত এক সভা শেষে এ কথা জানান রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেন, ‘রেলওয়ে টিকেটিং সেবা সহজ করতে এবং সাধারণ যাত্রীদের ঝামেলাহীনভাবে সকল সেবা দিতে এই অ্যাপস উদ্বোধনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

খুব শিগগিরই এই অ্যাপসের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। অ্যাপসের কারিগরি কাজ শেষ হয়েছে এখন পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ করে কিছুদিনের মধ্যেই এ অ্যাপসের সেবা চালু করা হবে।’

অ্যাপস প্রস্তুতকারকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ অ্যাপসের মাধ্যমে একজন যাত্রী টিকিট কাটতে পারবেন।

টিকিটের সিটগুলো দেখতে কেমন হবে কোন সিট কাটবেন সেগুলোর ছবি ও অ্যাপসের মাধ্যমে দেখা যাবে।

কোন দূরত্বে টিকিটের মূল্য কত তাও দেখা যাবে। জানা যাবে ট্রেনের বর্তমান অবস্থান কোথায় সে সম্পর্কেও। যাত্রা শেষে একজন যাত্রী সেবার মান সম্পর্কেও রেটিং দিতে পারবেন।

মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে একজন যাত্রীকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে পরবর্তীতে এই সেবা জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বরের সঙ্গে সকল সিস্টেম সমন্বিত করে এই সেবা কার্যক্রম আরো বাড়ানো হবে।

অ্যাপসের মাধ্যমে কাঙ্ক্ষিত ট্রেনের কতগুলো টিকিট অবশিষ্ট আছে বা কতগুলো সিট এখনো ফাঁকা আছে সে তথ্যগুলো একজন যাত্রী জানতে পারবেন।

পাশাপাশি ট্রেনের লিস্টগুলো দেখা যাবে কোন ট্রেন কোথায় যাবে। ভিসা, মাস্টার, বিকাশ জাতীয় ওয়ালেটের মাধ্যমে টিকিটের মূল্য পরিশোধ করা যাবে।

রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, এক সময় মানুষের যাতাযাতে শুধু ছিল রেলওয়ে এবং নদীপথে। এখন সড়কপথ, নৌপথ, রেলপথ এবং আকাশপথে যাতায়াতের ব্যবস্থা রয়েছে।

যাতায়াতের এ চার পথকেই আরও যুগোপযোগী করতে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে। একটি কথা প্রচলন রয়েছে যে দেশের রেলওয়ে ব্যবস্থা যত উন্নত সে দেশ তত বেশি উন্নত।

তাই আমরা রেলওয়ের সেবা বাড়নোর জন্য নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। রেলের প্রতি মানুষের ব্যাপক আস্থা আনতে যা যা করা দরকার আমরা তাই করব।’

মন্ত্রী বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে টিকিট সংগ্রহের এই ব্যবস্থাকে সবাই খুব সাধুবাদ জানিয়েছে প্রশংসা করেছেন। প্রাথমিকভাবে আমরা দুটি ট্রেনে এই ব্যবস্থা চালু করেছিলাম।

পরে সাধারণ মানুষের ব্যাপক সাড়া পাওয়ার ফলে সাতটি ট্রেনে এ সেবা চালু করা হয়। সর্বশেষ এখন ১৬টি ট্রেনে ন্যাশনাল আইডি ছাড়া কাউকে টিকিট দেয়া হচ্ছে না।

আগামীতে বাকি ট্রেনগুলোতেও ন্যাশনাল আইডি কার্ড ব্যবহার করে টিকিট ক্রয় এর ব্যবস্থা চালু করা হবে। হয়তোবা ঈদের আগেই এই ব্যবস্থা আমরা চালু করতে পারব।’

আলোচনা সভায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সিএনএসের পক্ষে জিয়াউর রহমান, আনিন্দসেন গুপ্তসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar