Home / আর্ন্তজাতিক / নেপালে লালগালিচা সংবর্ধনা রাষ্ট্রপতিকে

নেপালে লালগালিচা সংবর্ধনা রাষ্ট্রপতিকে

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে পৌঁছালে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে । রাষ্ট্রপতি ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নিয়মিত ফ্লাইটটি (বিজি ০০৭১) বেলা ১টায় নেপালের ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি লাউঞ্জে পৌঁছালে নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারী তাকে অভ্যর্থনা জানান। এসময় তার মন্ত্রিপরিষদের সদস্য এবং ঊর্ধ্বতন সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারীর আমন্ত্রণে চার দিনের এক সরকারি সফরে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা ৪ মিনিটে কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির সফরের কারণে নেপালের রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

পরে মোটার শোভাযাত্রায় রাষ্ট্রপতিকে কাঠমান্ডুর ম্যারিয়ট হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। তার চার দিনের সফরকালে তিনি এখানে অবস্থান করবেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে মো. আবদুল হামিদের এটি প্রথম কাঠমান্ডু সফর। বিমানবন্দর থেকে হোটেলে যাওয়ার সময় অনেক লোক বিশেষ করে শিশু ও শিল্পীরা বাংলাদেশি এবং নেপালি পতাকা হাতে নিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান। এছাড়াও, রাষ্টপতি আবদুল হামিদ এবং নেপালের রাষ্ট্রপতির ছবি দিয়ে রাস্তার দু’পাশ সাজানো হয়েছে।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির এই সফরকে কেন্দ্র করে কাঠমান্ডুতে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। এ সফর চলাকালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রতি নেপালের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠক করবেন।

রাষ্ট্রপতি ভান্ডারি বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও তার প্রতিনিধি দলের সম্মানে এক ভোজসভার আয়োজন করবেন।

রাষ্ট্রপতির পত্নী রাশিদা খানম, তার পুত্র সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহম্মেদ তৌফিক, হুইপ আতিউর রহমান আতিক, সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক এবং বঙ্গভবন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সফরসঙ্গী হয়েছেন।

অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে নেপালের ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় পরিষদের চেয়ারপারসন এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

রাষ্ট্রপতি হামিদের সঙ্গে নেপালের অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদেরও সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জানান, আবদুল হামিদ পোখরা এবং কাঠমান্ডুর ঐতিহাসিক প্রত্নতাত্ত্বিক ও সাংস্কৃতিক স্থানসমূহ পরিদর্শন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar