Home / বিনোদন / প্রিয়াংকার অসংখ্য অভিযোগ রাহুলের বিরুদ্ধে

প্রিয়াংকার অসংখ্য অভিযোগ রাহুলের বিরুদ্ধে

টলিউডের জনপ্রিয় জুটি রাহুল ব্যানার্জি ও প্রিয়াংকা সরকার ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। তবে এখন কিন্তু আর তারা জুটি নন। না রূপালী পর্দায়, না সাংসারিক জীবনে। অভিনয় জীবনে ভাটা পড়ার পাশাপাশি ভাটা পড়েছে তাদের ব্যক্তিগত সম্পর্কেও। গত ২০১৬ সালের শুরু থেকেই একমাত্র ছেলে সহজকে নিয়ে রাহুলের থেকে আলাদা থাকছেন প্রিয়াংকা। ছেলের সমস্ত খরচ তিনিই বহন করছেন।

যদিও ছেলের সমস্ত খরচ দুজনে মিলেই চালানোর কথা ছিল বলে দাবি করেছেন প্রিয়াংকা। বিবাহবিচ্ছেদ সম্পর্কে সম্প্রতি তিনি অভিযোগ করেছেন, রাহুল তার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। প্র্রিয়াংকার কথায়, ‘২০১৬ সালের শুরু থেকেই আমরা আলাদা থাকছি। রাহুলই আমাকে আলাদা থাকতে বাধ্য করে। সে আমাকে ঘর থেকে বের করে দেয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি করে। এমনকী, ডিভোর্স দেয়ার জন্য সে-ই আমাকে জোরাজুরি করে।’

প্রাক্তণ স্বামী রাহুলের বিরুদ্ধে প্রিয়াংকার অভিযোগের এখানেই শেষ নয়। একমাত্র ছেলে সহজকে নিয়েও তার নানা অভিযোগ রয়েছে। প্রিয়াংকা বলেন, ‘ডিভোর্সের সময় ঠিক হয়, সহজের পড়ালেখাসহ সমস্ত খরচ দুজনে মিলে বহন করবো। কিন্তু বর্তমানে রাহুল ছেলের কোনো খরচই দিচ্ছে না। কোনো দায়িত্বই নিচ্ছে না সে।’

প্রিয়াংকার অভিযোগ, ‘কিছুদিন আগে রাহুল নাকি ফোন করে বলে তার কোনো ছেলে চাই না। যার রেকর্ডও রয়েছে বলে দাবি প্রিয়াংকার। তিনি বলেন, ‘গত বছর সহজের স্কুলে ভর্তির সময় রাহুল বলেছিল সব খরচ দুজনে মিলে দিবো। কিন্তু কিছুদিন আগে রাহুল বলে, প্রিয়াংকা আমি পারব না, তুমি সব খরচা চালিয়ে নাও। এমনকী, সে সন্তানের অস্তিত্ব পর্যন্ত অস্বীকার করেছে।’

এখানেও শেষ নয়। অভিযোগ আরও আছে। কিছুদিন আগে রাহুল প্রিয়াংকার বাড়িতে গিয়ে ছেলে সহজকে তার মায়ের বিরুদ্ধে নানা রকম ভুল বোঝানোর চেষ্টা করেন বলেও অভিযোগ টলিউডের এই নায়িকার। প্রিয়াংকা বলেন, ‘রাহুল সহজকে বলেছে, তুমি মায়ের সঙ্গে থেকো না। মা তোমাকে ভালোবাসতে পারবে না। সবকিছু নিয়ে সহজ খুব হতাশায় ভুগছে। স্কুলে কান্নাকাটি করে। এজন্য একদিন তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দিতে বাধ্য হয় স্কুল কর্তৃপক্ষ।’

প্রিয়াংকার দাবি, ‘রাহুলের সঙ্গে বিয়ের পর থেকেই শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার আমি। আমাকে সব সময় তার পছন্দ মতোই চলতে হতো। আমার পছন্দের কোনো গুরুত্বই ছিল না। আমার বাইরে বেরোনো পর্যন্ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। তবুও সন্তানের মুখ চেয়ে সব সহ্য করেছি। ভেবেছি, একদিন ঠিক বদলে যাবে রাহুল। কিন্তু সে বিশ্বাসের গুড়ে বালি। উল্টে আমার উপর নির্যাতন বাড়তে থাকে।’

রাহুলের বিরুদ্ধে অন্য নারীর সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়ানোরও অভিযোগ রয়েছে প্রিয়াংকার। সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে এসব লুকিয়ে রেখেছিলেন বলে জানান নায়িকা। কিন্তু দিনে দিনে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার বাড়তে থাকায় তারা আলাদা থাকতে শুরু করেন। বিশ্বাসভঙ্গ, শারীরিক, মানসিক নির্যাতন ও খরপোষ আইনে চলতি বছরে একটি মামলা করতেও বাধ্য হন বলে দাবি প্রিয়াংকার।

তবে এই মামলা করার আগে সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে রাহুলের সঙ্গে সবকিছু মিটিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছেন বলেও দাবি প্রিয়াংকার। কিন্তু রাহুল নাকি তাতে কোনো ভ্রুক্ষেপ করেননি।

রাহুল-প্রিয়াংকার প্রেম শুরু হয়েছিল ২০০৮ সালে রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ ছবির সেট থেকে। দুই বছর চুটিয়ে প্রেম করে ২০১০ সালে বিয়ে করেন তারা। ১৫টি ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় এ জুটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar