Home / খবর / বাংলাদেশের দরকার ২৪৭ সিরিজ জিততে

বাংলাদেশের দরকার ২৪৭ সিরিজ জিততে

জিম্বাবুয়ের রান ৩০০ এর কাছাকাছি হবে একটা পর্যায়ে মনে হচ্ছিল। কিন্তু স্লগ ওভারে বাংলাদেশের বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ে স্কোরটা বেশি বড় করতে পারেনি। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে সফরকারীদের সংগ্রহ সাত উইকেটে ২৪৬ রান। সুতরাং, সিরিজ জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ২৪৭ রান। গত ২১ অক্টোবর তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছিল ২৮ রানে। সুতরাং, মাশরাফি বিন মুর্তজারা যদি আজ জিততে পারেন তাহলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিবেন।

জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে আজ উজ্জ্বল ছিলেন ব্রেন্ডন টেইলর। ৭৩ বল খেলে ৭৫ রান করেন তিনি। ওয়ানডেতে এটি তার ৩৫তম অর্ধশত। অন্যদের মধ্যে সিকান্দার রাজা ৪৯ ও শন উইলিয়ামস ৪৭ রান করেন। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মাশরাফি বিন মুর্তজা ১টি, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ১টি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৩টি ও মোস্তাফিজুর রহমান ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

বুধবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নামে জিম্বাবুয়ে। সফরকারীদের ইনিংসের শুরুতেই আঘাত হানেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে হ্যামিলটন মাসাকাদজাকে ফেরান তিনি। মাসাকাদজা করেন ১৪ রান। ওয়ানডে ক্রিকেটে সাইফউদ্দিনের এটি ছিল দ্বিতীয় শিকার।

এরপর ‘ভয়ঙ্কর’ হয়ে উঠতে থাকা টেইলর-ঝুয়াও জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ইনিংসের ১২তম ওভারের শেষ বলটি উড়িয়ে মারেন চেফাস ঝুয়াও। লং-অফে দাঁড়িয়ে থাকা ফজলে মাহমুদ রাব্বী ক্যাচটি নিতে ভুল করেননি। ঝুয়াওয়ের ব্যক্তিগত সংগ্রহ ২০ রান। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৫২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ব্রেন্ডন টেইলর ও চেফাস ঝুয়াও।

ঝুয়াও ফিরলেও জিম্বাবুয়ের রানটা দ্রুতই এগিয়ে নিচ্ছিলেন ব্রেন্ডন টেইলর ও শন উইলিয়ামস। এই জুটি ভাঙাটাই চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশের সামনে। ‘ভয়ঙ্কর’ এই জুটি ভাঙেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথমবার বোলিংয়ে এসেই উইকেটের দেখা পান তিনি।

ইনিংসের ৩০তম ওভারে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বলে এলবিডব্লিউ হন ব্রেন্ডন টেইলর। ফেরার আগে টেইলর করেন ৭৫ রান। ওয়ানডেতে এটি তার ৩৫তম অর্ধশত। তৃতীয় উইকেট জুটিতে শন উইলিয়ামসের সঙ্গে ৭৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন টেইলর।

ইনিংসের ৩৮তম ওভারে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে শন উইলিয়ামসকে ফেরান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। উইলিয়ামস করেন ৪৭ রান। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ৪১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন শন উইলয়ামস ও সিকান্দার রাজা।

জিম্বাবুয়ের দলীয় রান যখন ২২৯ তখন উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে সিকান্দার রাজাকে ফেরান মাশরাফি বিন মুর্তজা। ফেরার আগে সিকান্দার রাজা করেন ৪৯ রান। এরপর ৪৭তম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ধরা পড়েন পিটার মুর। ৪৮তম ওভারে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বলে নাজমুল ইসলাম অপুর হাতে ক্যাচ হন এলটন চিগুম্বুরা।

আজকের ম্যাচে একাদশে কোনো পরিবর্তন আনেনি টাইগাররা। অন্যদিকে, প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে একাদশে একটি পরিবর্তন এনেছে। ক্রেইগ আরভিনের পরিবর্তে একাদশে ঢুকেছেন এলটন চিগুম্বুরা।

গত ২১ অক্টোবর মিরপুরে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ২৮ রানে জিতেছিল বাংলাদেশ। সুতরাং, বাংলাদেশ যদি আজ জিততে পারে তাহলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিবে। ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ ১১ ম্যাচের ১১টিতেই বাংলাদেশ জিতেছে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

জিম্বাবুয়ে ইনিংস: ২৪৬/৭ (৫০ ওভার)

(হ্যামিলটন মাসাকাদজা ১৪, চেফাস ঝুয়াও ২০, ব্রেন্ডন টেইলর ৭৫, শন উইলিয়ামস ৪৭, সিকান্দার রাজা ৪৯, পিটার মুর ১৭, এলটন চিগুম্বুরা ৩, ব্রান্ডন মাভুতা ৯*, ডোনাল্ড তিরিপানো ৩*; মাশরাফি বিন মুর্তজা ১/৪৯, মোস্তাফিজুর রহমান ১/৩৫, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৩/৪৫, মেহেদী হাসান মিরাজ ১/৪৫, নাজমুল ইসলাম অপু ০/৪৩, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১/২১)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar