Home / বিনোদন / বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন তার মা ডিসি-সাধনার

বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন তার মা ডিসি-সাধনার

দেশজুড়ে চলছে সমালোচনা জামালপুরের প্রাক্তন জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরের সাথে অফিস সহকর্মী সানজিদা ইয়াসমিন সাধনার আপত্তিকর ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর ।

ইতিমধ্যে এ ঘটনায় আহমেদ কবীরকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়েছে। তার জায়গায় নতুন ডিসি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মো. এনামুল হক।

এ ঘটন প্রকাশ্যে আসার পর বেরিয়ে আসছে একের পর এক গোপন তথ্য। জানা যায়, পিয়ন পদে চাকরি করলেও ডিসি অফিসে দোর্দণ্ড প্রতাপে দাপিয়ে বেড়াতেন সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা। তার প্রভাবের মুখে সব সময় কর্মকর্তা কর্মচারীরা থাকতো তটস্থ।

এদিকে ডিসি আহমেদ কবীরের সঙ্গে নিজের মেয়ের আপত্তিকর ভিডিওচিত্র সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর মুখ খুললেন সাধানার মা নাসিমা বেগম।

আহমেদ কবীরের সঙ্গে কোনোভাবেই নিজের মেয়ের বিয়ে দিতে রাজি নয় সাধনার পরিবার।

এ ব্যাপারে সাধানার মা নাসিমা বেগম বলেন, এ ধরনের কোনো প্রস্তাব ডিসি কিংবা তার পরিবারের পক্ষ থেকে আমাদের দেয়া হয়নি। আর দেয়া হলেও আমরা তা মেনে নেব না। ডিসির সঙ্গে আমার মেয়ের বিয়ে কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তার নিজের একটা পরিবার রয়েছে, অন্যদিকে আমার মেয়েরও সন্তান রয়েছে। তাই এ ধরনের কিছুই সম্ভব নয়।

সাধনা এখন মানসিকভাবে খুব ভেঙে পড়েছেন বলে উল্লেখ করে নাসিমা বেগম বলেন, এই ঘটনার পর থেকে আমার মেয়ে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছে। ও এখন কারও সঙ্গে কথা বলতে চাচ্ছে না। আপনারা প্লিজ ওকে ডিস্টার্ব করবেন না। ওর একটা ছেলে আছে। ছেলেটাকে নিয়ে ওকে বাঁচতে দিন।

এর আগে মঙ্গলবার গুঞ্জন উঠেছিল, নিজের চাকরি বাঁচাতে আহমেদ কবীর সাধনাকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নাম-পরিচয় উল্লেখ না করে এক সূত্রের বরাতে বলা হয়, স্বামীর চাকরি বাঁচাতে আহমেদ কবীরের বর্তমান স্ত্রী কঠিন হলেও এতে সম্মতি দেয়ার চিন্তা করছেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি জামালপুরের ডিসির একটি আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে ডিসি আহমেদ কবীরের সঙ্গে তার অফিসের এক নারীকর্মীকে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা যায়। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে খন্দকার সোহেল আহমেদ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে জেলা প্রশাসকের আপত্তিকর ভিডিওটি পোস্ট করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar