Home / অন্যান্য / নির্বাচন / ভুয়া খবর যাচাই কেন্দ্র যেভাবে কাজ করবে র‍্যাবের

ভুয়া খবর যাচাই কেন্দ্র যেভাবে কাজ করবে র‍্যাবের

অসত্য তথ্য প্রচার ঠেকাতে র‍্যাব ফেসবুকে একটি পেজের মাধ্যমে ‘র‍্যাব সাইবার নিউজ ভেরিফিকেশন সেন্টার’ নামে একটি কেন্দ্র চালু করার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় ।

তারা বলছে নির্বাচনের সময় যদি সামাজিক মাধ্যমের কোন খবর নিয়ে কারো সন্দেহ থাকে, তা তাদের কাছে পাঠালে তারা খবরের সত্যতা যাচাই করে ফিডব্যাক দেবে।

র‍্যাব বলছে, নির্বাচনের সময় সত্যতা যাচাইয়ের জন্য চব্বিশ ঘণ্টা কাজ করবে এই সেন্টার।

র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বিবিসি’কে বলেন সোশ্যাল মিডিয়াতে কোনো খবর আসলেই সেটা দেখে মানুষের মধ্যে বিশ্বাস করার প্রবণতা থাকায় সমস্যার সৃষ্টি হয় অনেক সময়।

মি. খান বলেন, “এর আগে আমারা দেখেছি বেশ কয়েকটি ঘটনার ক্ষেত্রে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে মানুষের মধ্যে ছড়ানো হয়েছে এবং পরবর্তীতে প্রমাণিত হয়েছে যে সেগুলো উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে তৈরি করেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেয়া হয়েছিল।”

বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে এধরণের ঘটনা ঘটার কারণে অনেকের মধ্যেই ভুয়া খবর সংক্রান্ত সচেতনতা তৈরি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মি. খান।

“অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন যে কোনো খবর সঠিক কিনা তা কীভাবে বুঝবো; সেই জায়গাটা থেকেই আমরা এই ভেরিফিকেশন সেন্টার তৈরি করার বিষয়টি চিন্তা করেছি।” কীভাবে কাজ করবে এই ভেরিফিকেশন সেন্টার?

মি. মাহমুদ খান জানান, সোশ্যাল মিডিয়ার কোনো খবর সম্পর্কে কারো মধ্যে সন্দেহ তৈরি হলে র‍্যাবের সাইবার নিউজ ভেরিফিকেশন সেন্টারের কাছে সেটির সত্যতা যাচাই করতে পাঠাতে পারেন তারা।

“মানুষের মধ্যে কোনো খবরের বিষয়ে সন্দেহ থাকলে তারা আমাদের জানাবে এবং আমরা সেটি যাচাই করে দেবো।”

মি. খান বলেন, “যেহেতু আমরা এবিষয়ে বিশেষজ্ঞ এবং আমরা এগুলো নিয়েই কাজ করে থাকি, তাই আমরা দ্রুত এগুলো যাচাই করে দেয়ার সক্ষমতা রাখি।”

র‍্যাবের এই ভেরিফিকেশন সেন্টারে যোগাযোগের ফোন নম্বর এবং ফেসবুক পেইজের ঠিকানা গণমাধ্যমগুলোর কাছে আছে বলে নিশ্চিত করেন মি. খান।

এছাড়া ‘রিপোর্ট টু র‍্যাব’ নামের একটি অ্যাপও চালু আছে বলে তিনি জানান।কত তাড়াতাড়ি খবর যাচাই করা যাবে?

খবর যাচাই করার সময় সম্পর্কে জানতে চাইলে মি. খান বলেন, “সত্যটা যাচাই করতে আসলে খুব বেশি সময় প্রয়োজন হয় না।”

“সারা বাংলাদেশেই আমাদের ফোর্স রয়েছে এছাড়া নির্বাচনের সময় পুরো দেশেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বহু সদস্য কর্মরত রয়েছেন।”

“কাজেই কোনো একটি খবর ঠিক না ভুল সেটি জানতে আমাদের বেশি সময় লাগবে না আশা করি”,বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মি. খান। মানুষকে জানানো যাবে কীভাবে?

ভোট গ্রহণের দিন ভুয়া খবর ছড়িয়ে দিয়ে মানুষকে ভোট দেয়ায় নিরুৎসাহিত করা বা সহিংসতায় উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করা হতে পারে।

কিন্তু এরকম ক্ষেত্রে ভুয়া খবর যাচাই করে সেটির সত্যতা সম্পর্কে মানুষকে জানানো হবে কীভাবে?

এই প্রশ্নের উত্তরে মি. খান বলেন, “আমাদের এটি আসলে ভেরিফিকেশন সেন্টার: অর্থাৎ কোনো ভুয়া খবর প্রকাশিত হলে সেটির সত্যতা যাচাই করা হবে এখানে।”

সামাজিক মাধ্যমে কারো যদি কোনো খবরের বিষয়ে সন্দেহ হয় তাহলে তিনি সেই খবরটি র‍্যাবকে জানাতে ফোন, ফেসবুক পেইজ বা অ্যাপের মাধ্যমে পারবেন এবং র‍্যাব যত দ্রুত সম্ভব সেই খবরের সত্যতা যাচাই করার চেষ্টা করবে বলে জানান মি. খান।

সূত্রঃ বিবিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar