Home / আর্ন্তজাতিক / যুক্তরাষ্ট্রএকই স্থানে ইরানের বিমান ভূপাতিত করেছিল

যুক্তরাষ্ট্রএকই স্থানে ইরানের বিমান ভূপাতিত করেছিল

সম্প্রতি পারস্য উপসাগরের যে এলাকায় মার্কিন গোয়েন্দা ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করেছে ইরান, সেই একই এলাকায় তিন দশক আগে ইরানের একটি যাত্রীবাহী বিমান গুলি করে সাগরে ফেলে দিয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ।

আরবি টেলিভিশন চ্যানেল আল-মায়াদিন এ স্মৃতিচারণ করে বলেছে, মার্কিন ‘গ্লোবাল হক’ ড্রোনটি ঠিক সেই স্থানে বিধ্বস্ত হয়েছে যেখানে ১৯৮৮ সালের ৩ জুলাই ইরানের একটি যাত্রীবাহী বিমানে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। পারস্য উপসাগরে মোতায়েন মার্কিন রণতরী ইউএসএস ভিনসেস থেকে ওই বিমানে গুলি করা হয়। এর ফলে ওই বিমানের ২৯০ আরোহীর সবাই নিহত হন, যাদের মধ্যে ৫৩ জন শিশু ছিল।

ইরানের যাত্রীবাহী বিমান গুলি করে ভূপাতিত করার পর ৩১ বছর পেরিয়ে গেলেও যু্ক্তরাষ্ট্র ওই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেনি। এমনকি ওই ঘটনায় মার্কিন সরকার ইউএসএস ভিনসেসর কমান্ডার উইলিয়াম রজার্সকে পদক দিয়ে পুরস্কৃত করেছিল।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি গত বৃহস্পতিবার ইরানের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশকারী একটি অত্যাধুনিক মার্কিন ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করার ঘোষণা দেয়।

এছাড়া আইআরজিসির অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিযাদে বলেন, ‘ভূপাতিত মার্কিন ড্রোনটির সঙ্গে একটি মার্কিন পি-এইট সামরিক বিমান ছিল এবং সে বিমানে ৩৫ জন আরোহী ছিল। ওই বিমানটিও আমাদের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করেছিল এবং আমরা সেটিকে ভূপাতিত করতে পারতাম। কিন্তু আমরা তা করিনি কারণ, আমরা শুধুমাত্র ড্রোনটিকে বিধ্বস্ত করে আমেরিকাকে সতর্ক করতে চেয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar