ব্রেকিং নিউজ
Home / রাজনীতি / সরকার বাকশাল কায়েমের চক্রান্তে : চরমোনাই পীর

সরকার বাকশাল কায়েমের চক্রান্তে : চরমোনাই পীর

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির এবং চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দেশে আবারও বাকশাল কায়েম করতে চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ করেছেন। বলেছেন, ‘সরকার নির্বাচনব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়ে দেশে বাকশাল কায়েমের চক্রান্ত করছে। জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে আজীবন ক্ষমতায় টিকে থাকতে দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করছে।’

শুক্রবার বিকালে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

চরমোনাই পীর বলেন, ‘দেশ এক অনিশ্চিত গন্তব্যের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। মানুষের জানমাল, ইজ্জত-আব্রুর নিরাপত্তা নেই। আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদক সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে ঢুকে পড়েছে। সামাজিক অবক্ষয় মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এমতাবস্থায় একটি দেশ চলতে পারে না। এর আশু সমাধান প্রয়োজন।’

রেজাউল করিম বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোকে সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দিয়ে সরকার জাতির সাথে যে প্রতারণা করেছে, তা বিশ্বে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।’

সরকারের সমালোচনা করে ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, ‘পেট্রোবাংলা ও তিতাস কর্মকর্তাদের দুর্নীতি বন্ধ করতে পারলে আগামী ১০ বছরেও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করার প্রয়োজন হবে না। কিন্তু সরকার দুর্নীতি ও সিস্টেম লস বন্ধ না করে এর দায় জনগণের ওপর চাপানোর চক্রান্ত করছে।’

ওয়াজ মাহফিলের ওপর সরকারের বিধিনিষেধের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘ঢালাওভাবে ওয়াজ মাহফিলের ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং ওয়ায়েজিনদের ওপর করারোপের সিদ্ধান্ত সরকারের ইসলাম বিরোধী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ। ইসলাম বিরোধীদের চক্রান্তে পা দিয়ে আলেমদের নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে সরকারের জন্য বুমেরাং হতে পারে এবং সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে।’

দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি মাওলানা এবিএম জাকারিয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, ছাত্রনেতা শেখ ফজলুল করীম মারূফ।

সম্মেলনে ১০ দফা প্রস্তাব গৃহীত হয়। এছাড়া মহানগর দক্ষিণ ২০১৯-২০ সেশনের জন্য সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম ও সেক্রেটারি মাওলানা এবিএম জাকারিয়ার নাম ঘোষণা করেন চরমোনাই পীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar