Home / অন্যান্য / অপরাধ / স্ত্রীকে নির্যাতন ৭০ লাখ যৌতুক না পেয়ে

স্ত্রীকে নির্যাতন ৭০ লাখ যৌতুক না পেয়ে

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে চিকিৎসক স্ত্রী দুই বার যান । সেখান থেকে পান ভালো অঙ্কের টাকা। সেই টাকার প্রতি নজর পড়ে অতিরিক্ত সচিব স্বামীর। এই নিয়ে বচসা থেকে শারীরিক নিপীড়ন। দীর্ঘদিন স্বামীর সেই অত্যাচার মুখ চেপে সয়ে যাচ্ছিলেন স্ত্রী ফাতেমা জাহান বারী। সবশেষ গত শনিবার সকালে স্বামীর নির্যাতনে প্রাণ বাঁচাতে জরুরি নাম্বার ৯৯৯-এ ফোন করে সহায়তা চান তিনি। পুলিশ বেইলি রোডের সুপিরিয়র অফিসার্স কোয়ার্টার থেকে তাকে উদ্ধার করে।

গত শনিবার রাতে স্ত্রী ফাতেমা রমন মডেল থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের মামলা করেন। মামলা নম্বর-২০। পুলিশ ওই মামলায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ওএসডি কর্মকর্তা অতিরিক্ত সচিব জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার দেখায়।

রবিবার তাকে আতদালতে পাঠায় পুলিশ। সেখানে তার জামিনের আবেদন করা হলে এক হাজার টাকা মুচলেকায় স্ত্রীর জিম্মায় তাকে জামিন দেন ঢাকা মহানগর হাকিম শাহীনুর রহমান।

মামলার এজাহারে ফাতেমা জাহান বলেছেন, ২০১৮ সালের ১০ ডিসেম্বর রেজিস্ট্রি কাবিনমূলে তাদের বিয়ে হয়। তিনি পুলিশ হাসপাতালে কর্মরত থাকা অবস্থায় দুইবার জাতিসংঘের মিশনে যান। মিশন থেকে পাওয়া টাকার ওপরে লোভ জন্মায় স্বামী জাকির হোসেনের।

গত ২ আগস্ট বেলা তিনটার সময়ে বেইলী রোডের সুপিরিয়র অফিসার্স কোয়ার্টারের নিচ তলার বাসায় তার কাছে ৭০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন স্বামী জাকির। এই টাকা দিতে অস্বীকার করলে স্বামী তাকে এলোপাথাড়ি কিলঘুষি মারেন। দা, বটি ও লাঠি দিয়ে মারপিট করেন। একপর্যায়ে তার বাম চোখের ওপরে ঘুষি মারেন। এতে জখমের স্থানে তার আটটি সেলাই করতে হয়েছে।

মারধরের ঘটনাটি গোপনে করতে অতিরিক্ত সচিব মামলার বাদীকে রান্নাঘরের কেবিনেট খুলতে গিয়ে জখম হয়েছে বলে মিথ্যা বলতে বাধ্য করেন। পরে গত শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার সময়ে তার কাছে আবারও ৭০ লাখ টাকা যৌতুক চেয়ে মারধর করেন। নিরুপায় হয়ে জরুরি নাম্বার ৯৯৯-এ সাহায্য কল করে জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ করেন স্ত্রী ফাতিমা। পরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা রমনা মডেল থানার উপপরিদর্শক নিশাত জাহান। তিনি ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘মামলার বাদি এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন। মামলাটির তদন্ত চলছে। এ ব্যাপারে এর বেশি আর কিছু বলার নেই।’

এদিকে ফাতেমা অতিরিক্ত সচিব জাকির হোসেনের একমাত্র স্ত্রী নন বলে জানা গেছে। তিনি আগেও আরো দুইটি বিয়ে করেছিলেন। তাদেরকেও শারীরিক-মানসিক নির্যাতন করতেন বলে মামলায় অভিযোগ এনেছেন ডা. ফাতেমা জাহান বারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this:
Skip to toolbar