Home / অন্যান্য / অপরাধ / ৪০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি বিয়ে মেনে না নেয়ায় শিশু অপহরণ

৪০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি বিয়ে মেনে না নেয়ায় শিশু অপহরণ

এক শিশুকে অপহরণের ৪৮ ঘন্টা পর থানা পুলিশ নেত্রকোনার বারহাট্রা উপজেলার কলসা ঝুরি গ্রাম থেকে তাকে উদ্ধার করেছেটাঙ্গাইলের গোপালপুর থেকে চার বছরের । অপহৃত শিশুর নাম আবদুল্লাহ আল ওয়ার্সি। সে গোপালপুর উপজেলার সাজনপুর গ্রামের জাকিরুল ইসলামের পুত্র। পুলিশ অপহরণের সঙ্গে জড়িত মধুপুর উপজেলার পুন্ডুরা গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র লিখন, দামপাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের পুত্র সুমনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গোপালপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমীর খসরু জানান, মধুপুর উপজেলার পুন্ডুরা গ্রামের মনসুর আলীর পুত্র নাহিদ হোসেন বছর খানেক আগে  গোপালপুর উপজেলার সাজনপুর গ্রামের জাকিরুল ইসলামের ভাতিজি নূরীকে গোপনে বিয়ে করেন। নাহিদ নেশাখোর বিধায় শ^শুরবাড়ির সবাই বিরোধিতা করে। এতে নাহিদ ক্ষিপ্ত হয়ে জাকিরুলকে শিক্ষা দেয়ার পরিকল্পনা নেয়।

এরই অংশ হিসাবে নাহিদ তার বন্ধু রাজীব, সজীব, দুলাল ও লিখনের সহযোগিতায় গত রোববার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় চকোলেটের লোভ দেখিয়ে শিশু আবদুল্লাহ আল ওয়াশিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে মোবাইল ফোনে অপহৃতের মায়ের কাছে ৪০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে।

গোপালপুর থানার ওসি তদন্ত শফিউল আলম জানান, অপহৃতের পরিবার গোপনে পুলিশকে খবর দিলে গোপালপুর থানা পুলিশ মুক্তিপণের টাকা পরিশোধের ফাঁদ পেতে মধুপুর উপজেলার টেংরী থেকে মঙ্গলবার বিকালে প্রথমে লিটনকে আটক করে। পরে পুলিশ মোবাইল ট্রেকিং করে নেত্রকোনার বারহাট্রা উপজেলার কলসাঝুরি গ্রামের রুবেল মিয়ার বাড়ি থেকে অপহৃত আবদুল্লাহ আল ওয়াসিমকে উদ্ধার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar