Home / খবর / পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা আসামি ছিনতাই ময়মনসিংহে

পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা আসামি ছিনতাই ময়মনসিংহে

বৃহস্পতিবার রাতে শহরের ২ নং পুলিশ ফাঁড়ি এবং কাঁচিঝুলি গোলাপজান রোডে ময়মনসিংহে কার্যালয়ে ঢুকে ভাঙচুর, পুলিশে ওপর হামলা এবং আসামি ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। এসময় কর্মকর্তাসহ চারজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ঐ রাতে গোলাপজান রোড এলাকার বাসিন্দা একটি মামলার বাদী হযরত আলী মোটর বাইকে রওনা দেন । পথে ঐ মামলার আসামি মহানগর যুবলীগ সদস্য মরিুজ্জামান রনি এবং আসাদুজ্জামান অপুর নেতৃত্বে অতর্কিত তার ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ফারুক হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এসে অভিযান চালিয়ে আসাদুজ্জামান অপুকে গ্রেপ্তার এবং  হজরত আলীকে উদ্ধার করেন ।

এ ঘটনা শুনে মহানগর যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান রনির নেতৃত্বে ১২ থেকে ১৪ জনের সন্ত্রাসী গ্রুপ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মোটর বাইকে এসে ২ নং পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে এবং পুলিশকে মারধর করে ।

এ ঘটনার পর থেকে ঐ এলাকায় গ্রেপ্তার আতঙ্ক বিরাজ করছে।

কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কামরুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে জানান, এ ঘটনায় শান্ত নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ওসি কামরুল বলেন, আসাদুল্লাহ অপু কলেজ রোড রেল ক্রসিং মোড়ে মটরসাইকেল ভাংচুর করছিল বলে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাতে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে অপু ও তার অনুসারীরা।

পরে অপুকে গ্রেপ্তার করে ফাঁড়িতে আনার পথে যুবলীগ নেতা রনি পাঁচটি মোটরসাইকেলযোগে তার লোকজন নিয়ে আমাদের গতিরোধ করে। পরে ধস্তাধস্তি করে অপুকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এসময় অপু আমাদের লক্ষ্য করে গুলি করার নির্দেশ দেয় রনিকে। এ ঘটনায় আমাদের দুই পুলিশ সদস্য আহত হন বলে জানান ওসি।

রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের মাধ্যমে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*