Home / খবর / ‘ পদত্যাগ করা উচিৎ বিএনপি নেতাদের ’

‘ পদত্যাগ করা উচিৎ বিএনপি নেতাদের ’

ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে সাধারণ মানুষ নয়, বিএনপি বেশি দুশ্চিন্তাগ্রস্ত আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, । তারা মনে করেছিল আদালতের পর্যবেক্ষণকে ইস্যু করে তারা ক্ষমতায় যাবে। কিন্তু তাতেও তারা ব্যর্থ। বিএনপি এখন ঢাল তলোয়ারবিহীন দলে পরিণত হয়েছে।
দেশব্যাপী তুমুল আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেওয়া চলমান ইস্যু ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে কথা বলতে চাননি ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক।
তবে সাংবাদিকদের প্রশ্নে একপর্যায়ে বলেন, ‘ঈদের পর অনুষ্ঠেয় জাতীয় সংসদ অধিবেশনে ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে আলোচনা হতে পারে। সেখানে কী আলোচনা হবে, আমি এখনই বলতে পারবো না। তা স্পিকার ও সংসদীয় কমিটির সদস্যরা জানেন।’
‘সংসদ সদস্যরা আলোচনা উত্থাপন করতেই পারেন। তবে আগামী অধিবেশন সংক্ষিপ্ত হবে। সেখানে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিল পাশ হবে,’ বলেন কাদের।
আজ রোববার দুপুর ১২টায় যশোর সার্কিট হাউজে সড়ক ও জনপথ বিভাগের খুলনা ও গোপালগঞ্জ জোনের নির্বাহী প্রকৌশলীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মন্ত্রী।
মন্ত্রী এসময় বলেন, “বিএনপি সবসময় ইস্যু খোঁজে। তারা মনে করেছিল আদালতের পর্যবেক্ষণও একটা ইস্যু। এটাকে নিয়ে আন্দোলন করা যাবে, সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলা যাবে। এ কারণে বিএনপিই এ বিষয় নিয়ে প্রথম রাজনীতি শুরু করেছে। তাদের বক্তব্য এমন যে, রায়ের পর্যবেক্ষণের কারণে সরকারের পদত্যাগ করা উচিত। আসলে বিএনপি এখন ‘ঢাল নাই তলোয়ার নাই, নিধিরাম সরদার’ মার্কা একটা দলে পরিণত হয়েছে।’’
মন্ত্রী বলেন, ‘তাদের এখন প্রেস ব্রিফিংই সম্বল। আমার মনে হয় আদালত নিয়ে তাদের চিৎকার চেঁচামেচি আস্তে আস্তে মিইয়ে পড়ছে, কমে যাচ্ছে। এটা চলে গেলে আর তো কোনো ইস্যুও নেই। তারা নিজেরা ব্যর্থ; আন্দোলন সংগ্রাম করার কোন যোগ্যতা নেই। তারা এখন শুধু নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে। কথায় কথায় নালিশ। এসব ব্যর্থতার কারনে পদত্যাগ তো তারা করবে। ৫৯৬ জনের কমিটি কোনোদিন রাস্তায় নামতে পারেনি তো এরা পদত্যাগ করবে না! লজ্জাশরম থাকলে আমাদের বলতো না।’
কাদের বলেন, ‘এ দেশের ৭৫-পরবর্তী ইতিহাসের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা শেখ হাসিনা। গ্রামে-গঞ্জে জনমত জরিপ করুন- এখনো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ৭৫-পরবর্তীকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় সরকার। যে সরকারের সাথে জনগণ আছে, তারা কেন পদত্যাগ করবে? এটা কি মামা বাড়ির আবদার?’
এর আগে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ঈদযাত্রা নির্বিঘœ করতে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১৫ জেলার সব জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়ক চলাচলের উপযোগী করার জন্য সড়ক বিভাগের প্রকৌশলীদের নির্দেশ দেন। এসময় সড়ক ও জনপথ বিভাগের খুলনা ও গোপালগঞ্জ জোনের আওতায় থাকা বিভিন্ন সড়কের খোঁজ-খবর নেন তিনি।
মতবিনিময় সভায় যশোর-৩ সদর আসনের এমপি কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-৫ আসনের এমপি স্বপন ভট্টাচার্য্য, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রুহুল আমিন, খায়রুল ইসলাম, যশোরের জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানসহ সড়ক বিভাগের ১৫ জেলার নির্বাহী প্রকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar