Home / খবর / সেনাবািহনী জনগণের অবিচ্ছেদ্য অংশ : প্রধানমন্ত্রী

সেনাবািহনী জনগণের অবিচ্ছেদ্য অংশ : প্রধানমন্ত্রী

সেনাবাহিনীর কমিশনপ্রাপ্ত অফিসারদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  বলেছেন, তোমরাও এদেশের সন্তান। তোমাদের সকলকেই এদেশের সাধারণ মানুষের হাসিকান্না, সুখ-দু:খের অংশীদার হতে হবে। মনে রাখতে হবে তোমরা জনগণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আজ বুধবার চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের ভাটিয়ারীতে অবস্থিত বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে সেনাবাহিনীর এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। তিনবছর মেয়াদী প্রশিক্ষণ শেষে ল্যাফটেনেন্ট হিসেবে কমিশনপ্রাপ্ত অফিসারদের এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আজ সকালে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ-বিদেশে দায়িত্ব পালনে দক্ষতা ও পেশাদারিত্ব দেখিয়ে আমাদের সেনাবাহিনী সব মহলের প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

এই সুনাম আরও এগিয়ে নিতে হবে। বিশ্বের যে কোন প্রান্তের মানুষ শান্তি আর সমৃদ্ধির প্রতীক হিসেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে জানবে-এটিই আমার প্রত্যাশা।
দেশের আপদকালীন সময়ে সেনাবাহিনীর ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সাম্প্রতিক রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলা, দুর্গম পার্বত্য এলাকায় সড়ক ও অবকাঠামো, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মহাসড়ক, সেতু ও ফ্লাইওভার নির্মাণ এবং ভোটার তালিকা ও মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট তৈরিতেও সেনাবাহিনী দক্ষতা দেখিয়েছে। এ দক্ষতা আরও বাড়াতে হবে।
সেনাবাহিনীর ৭৫তম বিএম দীর্ঘমেয়াদী কোর্সের অফিসার ক্যাডেটদের কমিশনপ্রাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত রাষ্ট্রপতি প্যারেড পরিদর্শনের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী তাদের অভিবাদনও গ্রহণ করেন। এর আগে বুধবার সকাল ১১টা ৫ মিনিটে তিনি ভাটিয়ারীতে অবস্থিত বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে (বিএমএ) হেলিকপ্টারযোগে বিএমএতে সরাসরি অবতরণ করেন। এ সময় সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।
আর্মি ট্রেনিং অ্যান্ড ডকট্রিন কমান্ডের অধিনায়ক লে.জনারেল আব্দুল আজিজ এবং বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমির কমান্ড্যান্ট মেজর জেনারেল মো.সাইফুল আলম এ সময় উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী গত রবিবারও চট্টগ্রাম এসেছিলেন। সেদিন তিনি বাংলাদেশ নেভাল একাডেমীতে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ ২০১৭-এ অংশ নিয়েছিলেন। এছাড়া ওই দিন বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর দুই নম্বর গেটের চশমাহিল বাসভবনে গিয়েছিলেন। সেখানে মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানির মেজবানে পদদলিত হয়ে নিহত ১০ জনের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে অর্থ সহায়তা দিয়েছিলেন। তবে আজ সেনাবাহিনীর অনুষ্ঠানের বাইরে বেসামরিক কোনো প্রোগ্রামে যোগ দেননি প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*