Home / আর্ন্তজাতিক / ‘টাইমস আপ’ কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি রোধে নতুন প্রকল্প

‘টাইমস আপ’ কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি রোধে নতুন প্রকল্প

চিত্রনাট্য রচয়িতা ও পরিচালকগণ চলচ্চিত্র ও অন্যান্য কর্মক্ষেত্রে নারীর ওপর যৌন হয়রানি রোধে একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন হলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রী। এমন অভিনেত্রী, লেখক ও পরিচালকের সংখ্যা কমপক্ষে ৩০০। ‘টাইমস আপ’ নামের এই প্রকল্পটি শুধু হলিউড নয়, অন্যান্য যে কোন ক্ষেত্রে কাজ করা যে সকল নারী যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছেন- এ রকম সবাইকে সহায়তা দেবে। এই প্রকল্পের একটি বিজ্ঞাপন ছাপা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী দৈনিক দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের পুরো পৃষ্ঠাজুড়ে। এতে বলা হয়, বিনোদন খাতে কর্মরত নারীদের পক্ষ থেকে এটি সব কর্মক্ষেত্রে নারীদের জন্যে একটি সমন্বিত পরিবর্তনের উদ্যোগ। উল্লেখ্য, গত বছর হলিউডের বিখ্যাত সব অভিনেত্রী একে একে হলিউড মোঘল, চলচ্চিত্র প্রযোজক হারভে উইন্সটেনের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ আনেন।

এর পর শুরু হয় ‘মি টু’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদ। তা ধীরে ধীরে কর্মক্ষেত্রে নারীদের সঙ্গে যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন হিসেবে পরিণত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এবার হলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রীদের নেতৃত্বে আত্মপ্রকাশ করলো টাইমস আপ। এতে যুক্ত আছেন নাটালি পোর্টম্যান, রিজ উইদারস্পুন, কেট ব্লানচেট, এমা স্টোনের মতো বিখ্যাত সব তারকা। প্রকল্পটি ইতিমধ্যেই এক কোটি ৩০ লাখ ডলার অনুদান সংগ্রহ করেছে। এই অর্থ কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির শিকার হওয়া নারী এবং পুরুষদের আইনি সহায়তা দিতে ব্যবহার করা হবে। তবে এই সহায়তা মূলত অর্থনৈতিকভাবে অসচ্ছল নারী ও পুরুষ, যারা আইনি সেবার ব্যয় বহনে অক্ষম- তারাই পাবেন। প্রকল্পটির আওতায় লিঙ্গ বৈষম্য এবং নারী পুরুষের মধ্যে কর্মক্ষেত্রে বিভেদ দূরীকরণের ব্যাপারেও কাজ করা হবে। আলোকপাত করা হবে নারীদের কর্মক্ষেত্রে উচ্চপদে আসীন হওয়া এবং বেতন সমতার বিষয়েও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar