Home / খবর / প্রীতিলতার স্মৃতিতে প্রণবের শ্রদ্ধা ফেরার পথে

প্রীতিলতার স্মৃতিতে প্রণবের শ্রদ্ধা ফেরার পথে

ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি চট্টগ্রাম থেকে ফেরার পথে অগ্নিযুগের বিপ্লবী কন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের স্মৃতিতেও শ্রদ্ধা জানালেন। আজ বুধবার বেলা ১২টায় শ্রদ্ধা জানানো শেষে তার গাড়িবহর চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা দেন।
বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ছাড়েন তিনি। এর আগে নগরীর পাহাড়তলীতে বৃটিশদের তৈরি ইউরোপিয়ান ক্লাব যেটিতে প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের দল আক্রমণ করেছিলেন সেটি পরিদর্শন করেন। আক্রমণের সময় বৃটিশ সেনাদের হাতে ধরা পড়ে সেখানে আতœাহুতি দিয়েছিলেন বিপ্লবী কন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার।
এর আগে প্রণব মুখার্জি সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর হোটেল রেডিসন-ব্লু বে ভিউ থেকে দামপাড়া পুলিশ লাইনে যান।

এসময় সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার চৌধুরীসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। সেখানে তিনি বৃটিশ পুলিশের অস্ত্রাগার হিসেবে ব্যবহৃত দুটি স্থাপনা পরিদর্শন করেন।
সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, অগ্নিযুগের বিপ্লবী সূর্যসেনের নেতৃত্বে স্বাধীনতাকামী বিপ্লবীরা একটি অস্ত্রাগার লুট করেছিলেন। দুটি অস্ত্রাগারের মধ্যে একটিতে বৃটিশ পুলিশের অস্ত্র, আরেকটিতে গোলাবারুদ রাখা হত।
১৯৩০ সালের ১৮ই এপ্রিল অস্ত্রাগারটি বিপ্লবীরা দখল করলেও গোলাবারুদের সন্ধান তারা পাননি। এই ঐতিহাসিক স্থাপনা নিয়ে যে ইতিহাস সেটি সিএমপির পক্ষ থেকে আমি মহামান্য সাবেক রাষ্ট্রপতিকে জানিয়েছি। অস্ত্রাগার পরিদর্শন শেষে প্রণব মুখার্জি যান নগরীর পাহাড়তলীতে সেই ইউরোপিয়ান ক্লাবে।
দীর্ঘসময় রেলওয়ের কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হওয়া এই স্থাপনা থেকে সম্প্রতি সেই কার্যালয় সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বসানো হয়েছে প্রীতিলতার আত্মাহুতির ইতিহাস সম্বলিত স্মৃতিফলক।
ইউরোপিয়ান ক্লাবে প্রণব মুখার্জিকে ফুল দিয়ে বরণ করেন সংসদ সদস্য ও রেলপথ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। এ সময় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরীসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারাও ছিলেন।
প্রণব মুখার্জি নান্দনিক স্থাপত্যে নির্মিত কাঠের কাঠামোর সেই ক্লাবটি ঘুরে দেখেন। কাঠের পাটাতনের নিচে বৃটিশ সৈন্যদের অস্ত্র রাখার জায়গাটি এসময় তাঁকে দেখানো হয়। এরপর প্রণব মুখার্জি সেখানে প্রীতিলতার স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
বেলা ১২টার পর বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ছাড়েন ভারতের ইতিহাসে একমাত্র বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি। সঙ্গে ছিলেন মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখার্জিও।
প্রণব মুখার্জি ইউরোপিয়ান ক্লাবে পৌঁছার আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। তিনি বলেন, ইউরোপিয়ান ক্লাবকে জাদুঘর হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এছাড়া রাউজানে চুয়েট পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণের পর সেখানে যে স্টেশন হবে সেটা সূর্যসেনের নামে নামকরণ হবে।
উল্লেখ্য, গত ১৪ই জানুয়ারি বিকেলে ঢাকায় পৌঁছান প্রণব মুখার্জি। মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে চট্টগ্রামে এসে তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিলিট ডিগ্রী প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এরপর অগ্নিযুগের বিপ্লবী সূর্যসেনের স্মৃতি দেখতে রাউজানে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar