Home / খেলা / মুম্বাইয়ে মোস্তাফিজ দুই কোটি ২০ লাখ রুপিতে

মুম্বাইয়ে মোস্তাফিজ দুই কোটি ২০ লাখ রুপিতে

দুই কোটি ২০ লাখ রুপিতে মোস্তাফিজুর রহমানকে দলে ভিড়িয়েছে মুম্বাই ইনডিয়ান্স ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর ১১তম আসরে । আইপিএলের মোস্তাফিজের ভিত্তি মূল্য এক কোটি হলেও বেশ চড়া দামে মুম্বাই তাকে দলে নেয়। নিলামে মোস্তাফিজুর রহমানের নাম তোলা হলে প্রথমে দিল্লি আগ্রহ প্রকাশ করে। কিন্তু দিল্লিকে পেছনে ফেলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ‘কাটার মাস্টারকে’ দলে নিয়ে নেয়।

আইপিএলে ২০১৬ সালে অভিষেক হয় মোস্তাফিজুর রহমানের। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে খেলেছিলেন তিনি। সেবার তার দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ওই আসরে ১৬ ম্যাচ খেলে ১৭টি উইকেট নিয়ে দলকে শিরোপা জেতাতে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন মোস্তাফিজ। কিন্তু ২০১৭ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। ওই ম্যাচে তিনি কোনও উইকেট শিকার করতে পারেননি।

মোস্তাফিজের আগে আজ দলে পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে দুই কোটি রুপিতে দলে নিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ২০১১ সাল থেকে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলে আসছিলেন সাকিব আল হাসান।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) এই আসরের দুইদিন ব্যাপী খেলোয়াড় নিলাম শুরু হয়েছে আজ। এবার খেলোয়াড়দের নিলামের জন্য ৫৭৮ জন খেলোয়াড়ের একটি চূড়ান্ত তালিকা করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। এদের মধ্যে ভারতীয় ও বিদেশি মিলিয়ে মোট ১৬ জন খেলোয়াড়কে নিয়ে ‘মার্কুই’ ক্যাটাগরি করা হয়েছে। সাকিব আল হাসানও ছিলেন এই ক্যাটাগরিতে। মার্কুই ক্যাটাগরির খেলোয়াড়দের তালিকায় সাকিবের ভিত্তি মূল্য ছিল ২ কোটি ।

বাংলাদেশ থেকে মোট আটজন খেলোয়াড় আইপিএল নিলামের জন্য নাম লিখিয়েছিলেন। কিন্তু চূড়ান্ত তালিকা থেকে মেহেদী হাসান মিরাজ ও লিটন দাস বাদ পড়ে এখন ৬ জন আছেন নিলাম তালিকায়।

আইপিএলে ছয় বছরের ক্যারিয়ারে কলকাতার হয়ে সাকিব আল হাসান ৪৩টি ম্যাচ খেলেন। তিনি ব্যাট হাতে রান করেছেন ৪৯৮। আর বল হাতে উইকেট নিয়েছেন ৪৩টি। বিগত আসরে কলকাতায় সাকিবের মূল্য ছিল দুই কোটি ৪০ লাখ রুপি। আইপিএলে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মূল্যে খেলেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। কলকাতা নাইট রাইর্ডাসের তিনি খেলেছেন ৪ কোটি রুপিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*