Home / খবর / কিছু করার নেই কেউ নির্বাচনে না এলে

কিছু করার নেই কেউ নির্বাচনে না এলে

কোন দল নির্বাচনে আসবে কি আসবে না সেটা তাদের দলীয় সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন। এখানে সরকারের কিছূ করার নেই। ইতালি ও ভ্যাটিকান সিটিতে সদ্যসমাপ্ত সফর শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বিকেল সাড়ে চারটার কিছু পরে গণভবনে এ সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। সফর শেষে গত শনিবার ঢাকা ফেরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
দলের নেত্রীকে ছাড়া বিএনপি নির্বাচন করবে না এমন মন্তব্য নিয়ে করা প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন না করলে কিছু করার নেই।

এবারো না আসলে আমাদের কি করার আছে। আমরা বহুদলীয় গণতন্ত্রের দেশ। কোন দল করবে কোন দল করবে না এটা তাদের সিদ্ধান্ত। নির্বাচনও হবে। জনগনও ভোট দেবে। নির্বাচন করতে দেবো না। এটা গায়ের জোরের কথা। এটা বিএনপি বলতে পারে। তাদের চরিত্রই এ রকম। নির্বাচন হবে। যাদের জণগনের ভোটের ওপর আস্থা আছে তারা নির্বাচন করবে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই।’
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে থাকায় সাজাপ্রাপ্ত অপর নেতা তারেক রহমানকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করার সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, বিএনপির নেতৃত্বের কি এতোই দৈন্যদশা যে, তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বানানো হল। এই সাজাপ্রাপ্ত নেতা ছাড়া কি চেয়ারম্যান করার মতো দেশে আর কোন বিএনপি নেতা নেই?
বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে আদালতের রায় প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোর্ট রায় দিয়েছে, এখানে সরকারের করা কিছু নেই। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন ঠেকানোর নামে ২০১৪ সালে তারা (বিএনপি) আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে। ৭০টি সরকারি অফিস পুড়িয়েছে। নিরাপত্তা সদস্যদের মেরেছে। নির্বাচন মানুষের অধিকার। সাংবিধানিক অধিকার। দুর্নীতিতে সাজাপ্রাপ্ত তাকে ছাড়া নির্বাচনে যাবে না। রায়তো আমি দেই নাই। রায় দিয়েছেন আদালত। আর মামলা দিয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার। মামলা দায়ের করেছে দুদক। দশ বছর মামলা চলেছে। কার্যদিবস ২৬১ দিন। তিনবার জজের প্রতি অনাস্থা দেয়া হয়েছে। সময় চেয়েছেন ১০৯ বার। কোর্টে উপস্থিত ছিলেন মাত্র ৪৩ দিন। তারপর তার সাজা হয়েছে।’
প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে আরো জানান, আগামী মার্চ মাসের যে কোন সময় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন করা হবে। এটা আমাদের ইন্টারনেট ব্যবহার থেকে শুরু করে অন্যান্য ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন আনবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar