Home / খবর / ২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ টেনিস লিজেন্ড শারাপোভা

২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ টেনিস লিজেন্ড শারাপোভা

po

৯ জুনঃ  ডোপ পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়া মারিয়া শারাপোভাকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। গত জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চলার সময় করা ডোপ পরীক্ষায় রুশ এই টেনিস তারকার দেহে নিষিদ্ধ উপাদান মেলডোনিয়াম পাওয়া যায়। মার্চের শুরুতে একথা জানায় আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। তখন থেকেই তাকে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করে সংস্থাটি।

মেয়েদের টেনিসের সাবেক এই বিশ্বসেরা খেলোয়াড় তখনই বলেছিলেন, গত ১০ বছর ধরে তিনি স্বাস্থ্যগত কারণে যে ওষুধ নিয়ে আসছিলেন তাতে এই উপাদান ছিল। ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সি (ওয়াডা) শারাপোভার নমুনা পরীক্ষা করে তার মেলডোনিয়াম নেওয়ার প্রমাণ পায়। গত ২ মার্চ তারা রাশিয়ার এই টেনিস তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে।ওয়াডা গত ১ জানুয়ারি মেলডোনিয়ামকে নিষিদ্ধ উপাদান হিসেবে ঘোষণা করে। শারাপোভা দাবি করেন, এর আগের ১০ বছর ধরে ওষুধটি সেবন করা বৈধ ছিল। কিন্তু নিয়ম বদলানোর বিষয়টি তার অজানা থেকে যায়।

নিষিদ্ধ ড্রাগের তালিকার পরিবর্তন নিয়ে ওয়াডা অবশ্য গত ২২ ডিসেম্বর শারাপোভাকে ইমেইল করেছিল। কিন্তু সেটা না দেখায় নিজের ভুল স্বীকার করে নেন ২৯ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়।ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সি (ওয়াডা) গত এপ্রিলে জানায়, মেলডোনিয়াম কত দিন পর্যন্ত দেহে থাকে বিজ্ঞানীরা সে বিষয়ে নিশ্চিত নন। তাই ১ মার্চের আগে যারা এতে পজিটিভ হয়েছেন তারা নিষেধাজ্ঞা এড়াতে পারেন, যদি তারা প্রমাণ করতে পারেন যে তারা ১ জানুয়ারির আগেই এটা নেওয়া বন্ধ করেছেন।

শারাপোভা অবশ্য মার্চে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ হওয়ার পর জানিয়েছিলেন, ১ জানুয়ারির পরেও তিনি আগের ওই ওষুধ নিয়ে আসছিলেন যাতে মেলডোনিয়াম ছিল। কারণ তিনি জানতেন না যে, এটা নিষিদ্ধ তালিকায় উঠেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*