Home / অন্যান্য / অপরাধ / অর্থ চুরির এক মাস পরে মুখ খুললেন গভর্নর

অর্থ চুরির এক মাস পরে মুখ খুললেন গভর্নর

atiaar-rahmanএলার্ট নিউজ প্রতিনিধি ঢাকা: বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে বিশাল অঙ্কের অর্থ চুরির বিষয়ে এক মাস পরে ভারতের মাটিতে গিয়ে প্রথম এ ব্যাপারে কথা বললেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান। পাঁচ দিনের সফরে তিনি বর্তমানে ভারতে আছেন। এশিয়ার অর্থনীতির ওপর আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ও ভারত সরকার আয়োজিত এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর এখন দিল্লিতে । এসময় বাংলাদেশের একটি পত্রিকার ভারতের প্রতিনিধিকে তিনি অর্থ চুরির বিষয় নিয়ে একটি সাক্ষাৎকার দেন।সম্মেলনের ফাঁকে দিল্লির তাজমহল হোটেলে তিনি এ সাক্ষাৎকার দিয়েছেন বলে পত্রিকাটি জানায়।

রোববার প্রকাশিত সাক্ষাৎকারে ড. আতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের হ্যাকিংয়ের ঘটনার পর সাইবার নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে হ্যাংকিয়ের মাধ্যমে আট কোটি ডলার হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা গোটা বিশ্বের আর্থিক ব্যবস্থার জন্য চ্যালেঞ্জরূপে আবির্ভূত হয়েছে। এখানে তিনি আইএমএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টিনা লাগার্দসহ বিশ্বব্যাংক ও এডিবির কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ ঘটনা নিয়ে আলোচনা করেছেন। হ্যাকারদের পরিচয় অচিরেই পাওয়া যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ড. আতিউর রহমান বলেন, হ্যাকাররা হাতিয়ে নেওয়া অর্থ ফিলিপাইনে পাচার করে। ঘটনার পর ফিলিপাইন সরকার নানা ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে। তারা আন্তরিকভাবে তদন্ত করছেন। বিষয়টি নিয়ে নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। হ্যাকাররা যে অর্থ জালিয়াতি করে হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল, তার ৮০ শতাংশ রুখে দেওয়া গেছে। আন্তর্জাতিক উদ্যোগের মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংকে ফিরিয়ে আনা যাবে।

গভর্নর বলেন, জালিয়াতি জানার পর নিউইয়র্কের ফেডারেল ব্যাংকের কাছে যখন বাংলাদেশ ব্যাংক বার্তা দেয়, তার আগেই ফেডারেল ব্যাংক অর্থ হস্তান্তর করে দেয়। এ বিষয়ে তিনি উদ্বিগ্ন কি-না জানতে চাওয়া হলে বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে ফেডারেল ব্যাংকের ভূমিকা নিয়ে মন্তব্য করতে পারি না। তবে আশ্বাস পেয়েছি, বিষয়টির যথাযথ তদন্ত হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: