আটক ২ শতাধিক দেশীয় অস্ত্রসহ লালমনিরহাটে

315

থানা পুলিশ জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (বহিষ্কৃত) রেজাউল করিম রুমেল ও বুড়িমারী স্থলবন্দর বাজারের কামার হাফিজুর রহমানকে (২৭) শতাধিক দেশীয় অস্ত্রসহ (রামদা ও লোহা) আটক করেছে । বৃহস্পতিবার দুপুর বুড়িমারী বাজার থেকে তাদের আটক করা হয়। ৩১ অক্টোবর বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রভাব বিস্তার করার উদ্দেশ্যে তৈরি করা হচ্ছিল বলে ধারণা করছে পুলিশ।
এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী তাহাজুল ইসলাম মিঠু ও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাতের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা যায়।
আটক রেজাউল করিম রুমেল বুড়িমারী এলাকার মৃত আমিন আলীর ছেলে ও হাফিজুর রহমান একই ইউনিয়নের কামারহাট এলাকার মৃত আছিম উদ্দিন।
বুড়িমারী ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত লালমনিরহাট-২ আসনের(কালীগঞ্জ-আদিতমারী) সাংসদ সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের স্বজন হওয়ায় স্থানীয় প্রশাসন এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছে বলে একটি দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

আটক রেজাউল করিম রুমেলের উপস্থিতিতে থানার ভেতরে কামার হাফিজুর রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি (হাফিজুর) বলেন, ‘বুড়িমারী ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাতের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা আইয়ুব আলী রাম দা তৈরির জন্য কিছু লোহা আমার দোকানে দিয়ে যায়। এসব দিয়ে কিছু রাম দা তৈরি করে তাদেরকে দিয়ে দিয়েছি। বাকিগুলোও তৈরি করছিলাম। এজন্য পুলিশ গিয়ে আমার দোকান থেকে কিছু রাম দা ও লোহাসহ আমাকে আটক করেছে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পাটগ্রাম থানার ওসি অবনী শংকর কর রুমেল ও হাফিজুরকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘সম্পূর্ণ পরিস্থিতি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রকৃত অপরাধী যিনিই হোন না কেন তাকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।’

পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘বিষয়টি নির্বাচন সংশ্লিষ্ট হওয়ায় অধিকতর তদন্ত চলছে। পরে যোগাযোগ করলে বিস্তারিত জানতে পারবেন।’

উল্লেখ্য, লালমনিরহাট জেলার ৯টি ইউনিয়নের অভ্যন্তরে ৫৯টি বিলুপ্ত ছিটমহল যুক্ত হওয়ায় সেখানকার অধিবাসীদের ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত শেষে নির্বাচনি তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ৩১ অক্টোবর এসব ইউনিয়ন ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।