একসঙ্গে কাজ করার তাগিদ প্রবাসীদের সুরক্ষায় এনজিও-ট্রেড ইউনিয়নকে

136

বিশেষজ্ঞরা প্রবাসীদের সুরক্ষায় বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে শ্রমিক সংগঠনগুলোকে (ট্রেড ইউনিয়ন) যুক্ত করে একসঙ্গে কাজ করার তাগিদ দিয়েছেন । শনিবার সকাল ১০টায় রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে আয়োজিত ‘ন্যাশনাল কনসালটেশন অন মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট: ট্রেড ইউনিয়ন এন্ড সিভিল সোসাইটি অর্গানাইজেশন’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অভিবাসখাত সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারক, বিশেষজ্ঞ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা। সলিডারিটি সেন্টার বাংলাদেশের সহযোগিতায় বেসরকারি সংস্থা ওয়ারবি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মুজিবুল হক বলেন, অভিবাসী শ্রমিকেরা দেশে-বিদেশে নানা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। কর্মী পাঠানোর সঙ্গে জড়িত মধ্যস্থতাকারী ও রিক্রুটিং এজেন্সিকে যথাযথ শাস্তির মুখে আনা যাচ্ছে না। সরকারি-বেসরকারি সব সংস্থাকে পরম আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

সাবেক পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হক বলেন, ট্রেড ইউনিয়ন ও এনজিও পুরোপুরি আলাদা উপায়ে কাজ করে। এ দুটিকে যুক্ত করা সহজ হবে না। তবে একসঙ্গে কাজ করার যথেষ্ট সুযোগ আছে।

দাবি আদায়ে ট্রেড ইউনিয়ন কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে।

অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে সলিডারিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রের কান্ট্রি প্রোগ্রাম ডিরেক্টর জন হার্টো সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, অভিবাসী শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে বিশ্বজুড়ে বিস্তৃত ট্রেড ইউনিয়নের নেটওয়ার্ক কাজে লাগানো যেতে পারে।

অভিবাসীদের সুরক্ষায় দেশের ট্রেড ইউনিয়নকে সম্পৃক্ত করার সময় এসেছে উল্লেখ করে ট্রেড ইউনিয়ন নেতা ও বাংলাদেশ অভিবাসী শ্রমিক ফোরামের উপদেষ্টা আবুল হোসেন বলেন, আলোচনার মধ্য দিয়ে ট্রেড ইউনিয়ন ও এনজিওর মধ্যে থাকা দূরত্ব দূর করা যেতে পারে। একসঙ্গে কাজ করার ওপর জোর দিয়েছেন বাংলাদেশ গার্মেন্টস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের সভাপতি বাবুল আক্তার।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অভিবাসন খাতের সংসদবিষয়ক বেসরকারি ককাসের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি মাহজাবীন খালেদ। ওরারবি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ সাইফুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সাংসদ রওশন আরা মান্নান, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নজিবুল ইসলাম, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক নজরুল ইসলাম, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীর খায়রুল আলম প্রমুখ।