Home / প্রশাসন / এখন কি করবেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ?

এখন কি করবেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ?

ওষুধ প্রশাসন সবশেষ খবর অনুযায়ী এখনও গণস্বাস্থ্যের তৈরি কিট নিয়ে সিদ্ধান্ত জানায়নি । যদিও বলা হয়েছে র‌্যাপিট টেস্ট কিট বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদন দেয়নি। জনমনে কৌতূহল তাহলে কি হবে? এই কিট নিয়ে আশাবাদ সর্বত্র। বিশেষত দেশের বাহির থেকে যখন কিট আমদানি সময়সাপেক্ষ ও ব্যয়সাপেক্ষ। সেখানে নিজ দেশের আবিষ্কৃত কিট নিয়ে আশার আলো দেখেছেন চিকিৎসা সংশ্লিষ্টসহ সাধারণ মানুষ। করোনা মহামারিতে ব্যাপকহারে পরীক্ষার জন্য কিটের বিকল্প নেই। কিন্তু নিজ দেশের কিট না নিয়ে অধিক মূল্যে ভিন দেশের কিট আনা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে সর্বত্র। গণস্বাস্থ্যের শনিবারের সংবাদ সন্মেলনে সরকারের কোন প্রতিনিধি অংশ নেননি।

এমন কি ওষুধ প্রশাসন এ নিয়ে নানা টালবাহানা করছে। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী অভিযোগ করেছেন, ব্যবসায়িক স্বার্থ রক্ষা করতেই থার্ড পার্টির মাধ্যমে উদ্ভাবিত কিট পরীক্ষার কথা বলছেন সরকারি কর্তৃপক্ষ। যদি ওষুধ প্রশাসনের সিদ্ধান্ত নিতে গাফিলতি হয় তাহলে কি করবেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী?
মানবজমিনের এমন জিজ্ঞাসায় সাফ বলেছেন, আমরা সবশেষ অনুরোধ করেছি ওষুধ প্রশাসনকে এটি বিএসএমএমইউ হোক, আইইডিসিআর হোক, আইসিডিডিআর হোক বা সিএমএইচ হোক তাদের মাধ্যমে এই কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষা করাতে। কথা হচ্ছে, এর জন্য ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনকে আমাদের কাছে চিঠি লিখতে হবে। আমরা নিজেরা কাউকে দিয়ে কিট পরীক্ষা করাতে পারি না। এটা ওষুধ প্রশাসনের দায়িত্ব।
তিনি আরও বলেন, আমরা সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করছি। কিন্তু সরকারি কর্তৃপক্ষ বা ওষুধ প্রশাসন কারও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে কাজ করছে বলে মনে হচ্ছে।  ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন যদি সিদ্ধান্ত না নেয় তবে বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখব। তার কাছে সময় চাইব। তিনি সময় দিলে আমরা কিটের আদ্যপান্ত তার কাছেই বলতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: