এখন মহিলা বেকার বেশি মার্কিন মুলুকে

107

বিশ্বজুড়ে করোনার প্রভাবে প্রচুর মানুষ নিজেদের কাজ হারিয়েছেন এই খবর আমরা সকলেই জানি। তবে দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবর অনুসারে আমেরিকায় করোনার জেরে প্রায় ৯০ শতাংশ মহিলা নিজেদের কাজ হারিয়েছেন। এর পাশাপাশি কর্মহীনতার হার সব থেকে বেশি কেনিয়ার মতো দেশগুলিতে। করোনাভাইরাস এর জেরে আমেরিকার প্রায় সর্বত্রই লকডাউন ছিল।

দীর্ঘদিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশের স্বাস্থ্যপরিসেবা যে এতটা মুখ থুবরে পড়বে সেটা কেউ আন্দাজ করতে পারেননি। আর এতদিন ধরে লকডাউন, মৃত্যু-মিছিল ইত্যাদির ফলে স্বাভাবিকভাবেই মার্কিন মুলুকের অর্থনীতিও অনেকটাই ভেঙে পড়েছে। সম্প্রতি একটি রিপোর্ট থেকে জানা গেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করালগ্রাসে পুরুষদের প্রাণ গেছে সবথেকে বেশি। কিন্তু সর্বত্র চাকরি হারিয়েছেন মহিলারাই বেশি।

মার্কিন মুলুকের ১৭ টি রাজ্যে করোনার প্রকোপে নতুন করে চাকরি হারিয়েছেন এমন প্রতি ৩ জনের মধ্যে দুজন মহিলা ও একজন পুরুষ। চাকরি হারানোর ক্ষেত্রে মহিলা ও পুরুষের অনুপাত হল ২ঃ১। তাহলে কি এখনো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সেই মধ্যযুগের ভাবনা বসে আছে! যে মহিলারা কর্ম ক্ষেত্রে পুরুষদের সমকক্ষ হয়ে উঠতে পারেনি। সমাজতত্ত্ববিদ এর সমীক্ষা কিন্তু সে দিকেই ইঙ্গিত করছে।

মহামারীর জন্য আমেরিকায় গত মার্চের মধ্যভাগ থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় দু’কোটি ২৬ লক্ষ মানুষ চাকরি হারিয়েছেন এবং তারা ইতিমধ্যে বেকার ভাতার জন্য আবেদন করেছেন। করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার হিসেব অনুসারে এখনো পর্যন্ত আমেরিকায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সবচেয়ে বেশি।

ফুলার প্রকল্পের তথ্য সম্পাদক সারা জানিয়েছেন শাটডাউনের পরে মহিলাদের মধ্যে বেকারত্বের হার ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে। সব রাজ্যের ক্ষেত্রে তারা একই চিত্র দেখতে পান। ২০০৮ সালের আর্থিক সংকটের ছবিটা অন্যরকম ছিল। সেই সময় যারা চাকরি হারিয়ে ছিলেন তাদের মধ্যে মহিলাদের থেকে পুরুষদের সংখ্যাটা বেশি ছিল। কিন্তু এবার চিত্রটা অন্য। করোনায় এখন মার্কিন মুলুকে মহিলা বেকারের সংখ্যা সব থেকে বেশি।