কম কার্যকর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট প্রতিরোধে ফাইজারের টিকা:ইসরাইলে নতুন গবেষণায়

27

কম কার্যকর করোনা ভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকে সুরক্ষা দেয়ার ক্ষেত্রে ফাইজারের টিকা। ইসরাইলে পরিচালিত এক নতুন গবেষণায় এ কথা বলা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়, ইংল্যান্ডের কেন্টে শনাক্ত হওয়া ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে অনেক বেশি দুর্বল এই টিকা। ৬ই জুন পর্যন্ত পরীক্ষায় দেখা গেছে, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমণ থামাতে এবং লক্ষণযুক্ত রোগ সৃষ্টি থামানোর ক্ষেত্রে ফাইজারের টিকা শতকরা ৬৪ ভাগ কার্যকর। কিন্তু মারাত্মক অসুস্থতা এবং হাসপাতালে ভর্তি থেকে শতকরা ৯৩ ভাগ কার্যকর এই টিকা। ইসরাইলে সামাজিক দূরত্বের বিধিনিষেধ তুলে নেয়ার পর সেখানে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পায়। এরপর এই গবেষণা করে ইসরাইলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তারাই এই গবেষণার ফল প্রকাশ করেছে।
এ খবর দিয়েছে বৃটেনের একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকার অনলাইন সংস্করণ। এ বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন ফাইজারের মুখপাত্র। তবে তারা বলেছেন, অন্য গবেষণাগুলো থেকে দেখা যায় তাদের টিকা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সহ সব রকম ভ্যারিয়েন্টকে নিষ্ক্রিয় করে দিতে সক্ষম।
বৃটেনেও এই টিকার ফল একই রকম এসেছে। সেখানে মাত্র এক সপ্তাহে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৫০ হাজার। আগের সপ্তাহের তুলনায় এই সংখ্যা শতকরা ৪৬ ভাগ বেশি। বৃটেনে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা মোট এক লাখ ৬১ হাজার ৯৮১। কিন্তু সেখানে হাসপাতালে ভর্তি বা মৃত্যুর সংখ্য কমে গেছে অনেক। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, এসব ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে টিকাদান অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য, ফাইজারের এক ডোজ টিকা দিলে লক্ষণযুক্ত অসুস্থতা থেকে শতকরা ৩৬ ভাগ কার্যকর হয়। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকে সুরক্ষিত রাখে। এক্ষেত্রে অক্সফোর্ড/এস্ট্রাজেনেকার টিকা কার্যকর শতকরা ৩০ ভাগ। কিন্তু দুই ডোজ টিকা সম্পন্ন হওযার পর ফাইজারের টিকা শতকরা ৯৬ ভাগ এবং এস্ট্রাজেনেকা শতকরা ৯২ ভাগ সুরক্ষা দেয়।
ইসরাইলের ৯৩ লাখ মানুষের শতকরা প্রায় ৬০ ভাগকে ফাইজারের টিকার কমপক্ষে একটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। এর ফলে সেখানে জানুয়ারিতে সংক্রমিতের সংখ্যা কমপক্ষে ১০ হাজার থেকে কমে গত মাসে এক অংকে পৌঁছেছে।