Home / খবর / করোনায় না ফেরার দেশে দুই চিকিৎসক ৮ ঘণ্টার ব্যবধানে

করোনায় না ফেরার দেশে দুই চিকিৎসক ৮ ঘণ্টার ব্যবধানে

অচেনা এই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে একের পর এক প্রাণ হারাচ্ছেন মানুষ। প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সারি দীর্ঘ হচ্ছে। বাদ যাচ্ছেন না রোগীদের সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকরাও। আক্রান্তের পাশাপাশি অনেক চিকিৎসক মারা যাচ্ছেন অদৃশ্য এই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আট ঘণ্টার ব্যবধানে করোনায় মারা গেছেন দুই চিকিৎসক। দুজন রাজধানীর আলাদা হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা দিতেন।

তাদের একজন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের (এনআইসিভিডি) কার্ডিওলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মাহমুদ মনোয়ার। ৪৩ বছর বয়সী এই চিকিৎসক শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এনআইসিভিডির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসকদের সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিলিটিসের (এফডিএসআর) যুগ্ম সম্পাদক ডা. রাহাত আনোয়ার চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৮ জন চিকিৎসক মারা গেলেন। গতকাল পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১ হাজার ১৫৩ জন চিকিৎসককে শনাক্ত করা হয়েছে।’

বাংলাদেশ ডক্টরৎ’স ফাউন্ডেশনের (বিডিএফ) সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. কাওসার আলমও বিষয়টি ঢাকাটাইমসকে জানিয়েছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত একটার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. গাজী জহিরুল হাসান।

হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বিএসএমএমইউর উপচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া ঢাকাটাইমসকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত শুক্রবার জহিরুল হাসান হাসপাতালে ভর্তি হন। এর আগে বাসায় থাকাকালীন তিনি করোনায় আক্রান্ত হন।

বিএসএমএম কর্তৃপক্ষ তার আত্মর মাগফিরাত কামনা করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: