কর পরিশোধ করবে জনগণ সেবার বিনিময়ে : তাজুল ইসলাম

129

জনগণ যদি বুঝতে পারে তারা ১ হাজার টাকা কর পরিশোধ করলে, সরকার তাদেরকে ১০ হাজার টাকার সুযোগ সুবিধা দিবে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন। তখন জনগণ নিজ ইচ্ছায় কর পরিশোধ করবে। কোনো জোর করার প্রয়োজন হবে না। সেবার মাধ্যমে জনগণকে আশ্বস্ত করতে হবে। তবেই জনগণ সেবার বিনিময়ে কর পরিশোধ করবে।

রোববার রাজধানীর একটি হোটেলে এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, সিটি করপোরেশনগুলোকে নিজস্ব অর্থায়ানে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য নানামুখী কার্যক্রমের পাশাপাশি কর আদায়ে আরও বেশি ভূমিকা নিতে হবে। এজন্য স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো জনবান্ধব হতে হবে। জনগণের সঙ্গে আরও বেশি সম্পৃক্ত হতে সকল জনপ্রতিনিধিদের পরামর্শ দেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, মানুষ যখন জানবে যে তার ট্যাক্সের টাকা দিয়ে রাস্তা করা হবে, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হবে, ধূলাবালি থাকবে না, মশা থাকবে না, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করা হবে, স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষা নিশ্চিত সব কিছুর ব্যবস্থা থাকবে সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে, তখন কর দিতে তারাও দায়বদ্ধ থাকবে।
তাজুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ শুধু পাকিস্তানই নয়, দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের থেকে উন্নয়নের বিভিন্ন ইনডিকেটরে এগিয়ে রয়েছে।
বিশ্বব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী পাকিস্তানের মাথাপিছু আয় ১৩ শত ডলার আর আমাদের দেশের ২১ শত ডলার। শুধু মাথাপিছু আয় নয়, সকল খাতে আমরা এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক উপরে আছি। আর এটা শেখ হাসিনার জন্য সম্ভব হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, কোভিড টেস্ট করার জন্য শুরুতে দেশে মাত্র একটি পিসিআর ল্যাব ছিলো। কিন্তু মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে ১০০ এর উপরে পিসিআর ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায়। এছাড়া দেশের প্রত্যেকটি জেলা এবং উপজেলায় আইসিইউ স্থাপন করেন।

শেখ হাসিনার একত্রিশ দফা নির্দেশনা বাস্তবায়ন করায় করোনা সংকট অন্যান্য দেশ থেকে তুলনামূলকভাবে মোকাবিলা করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ড. সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বক্তব্য রাখেন।