কাকা যুক্তরাষ্ট্রেও শীর্ষে

19

kkk

২০ মে: এসি মিলানের হয়ে,ক্যারিয়ারের সবচেয়ে সেরা সময়টা রিকার্ডো কাকা কাটিয়েছেন ২০০৭ সালে । ওই বছর বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। এরপর খেলেছেন রিয়াল মাদ্রিদেও। বয়সে কিছুটা বুড়িয়ে যাওয়ায় ডেভিড ভিয়া, ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড ও আন্দ্রে পিরলোর মতো তিনিওযোগ দিয়েছেন মেজর লিগ সকারে (এমএলএস)।

যুক্তরাষ্ট্রের ঘরোয়া ফুটবলে অরল্যান্ডো সিটির হয়ে আলো ছড়াচ্ছেন কাকা। যার ফলও হাতে পেয়েছেন তিনি। গত বছরের মতো এবারও এমএলএসের সবচেয়ে বেশি বেতনপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের তালিকায় শীর্ষেই রয়েছেন কাকা। এ বছরেই ব্রাজিলিয়ান প্লেমেকারের আয় প্রায় ৭১ লাখ ৬৭ হাজার ডলার। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় আসে প্রায় ৫৭ কোটি টাকা। এমএলএসের প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিবেদন বলছে এমনই।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন সেবাস্তিয়ান জোভিঙ্কো। ইতালির তারকা এই ফরোয়ার্ডের বার্ষিক বেতন ৭১ লাখ ১৫ হাজার ডলার। তৃতীয় স্থান দখলে রেখেছেন আমেরিকার জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক মাইকেল ব্র্যাডলি। তার আয় ৬৫ লাখ ডলার। ইংল্যান্ড ও লিভারপুলের সাবেক তারকা মিডফিল্ডার স্টিভেন জেরার্ডের অবস্থান চতুর্থ। লস অ্যাঞ্জেলেস গ্যালাক্সির ফুটবলারের বার্ষিক আয় ৬১ লাখ ৩২ হাজার ডলার।

এবার একনজরে দেখে নেয়া যাক এমএলএসে সবচেয়ে বেশি বেতনপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের তালিকায় শীর্ষ ১০ ফুটবলার:

১. কাকা (অরল্যান্ডো সিটি)………………………………..৭১ লাখ ৬৭ হাজার ডলার
২. সেবাস্তিয়ান জোভিঙ্কো (টরন্টো এফসি)………………..৭১ লাখ ১৫ হাজার ডলার
৩. মাইকেল ব্র্যাডলি (টরন্টো এফসি)……………………..৬৫ লাখ ডলার
৪. স্টিভেন জেরার্ড (লস অ্যাঞ্জেলেস গ্যালাক্সি)…………..৬১ লাখ ৩২ হাজার ডলার
৫. ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড (নিউ ইয়র্ক সিটি)……………………..৬০ লাখ ডলার
৬. আন্দ্রে পিরলো (নিউ ইয়র্ক সিটি)………………………৫৯ লাখ ১৫ হাজার ডলার
৭. ডেভিড ভিয়া (নিউ ইয়র্ক সিটি)………………………..৫৬ লাখ ১০ হাজার ডলার
৮. জোজি আল্টিডোর (টরন্টো এফসি)……………………৪৮ লাখ ২৫ হাজার ডলার
৯. ক্লিন্ট ডেম্পসি (সিয়াটল সাউন্ডার্স)…………………….৪৬ লাখ ৫ হাজার ডলার
১০. জিওভান্নি দস সান্তোস (লস অ্যাঞ্জেলস গ্যালাক্সি)…..৪২ লাখ ৫০ হাজার ডলার