কাতার বাংলাদেশ থেকে দক্ষ জনশক্তি নেবে

10

কাতার-চেম্বারপ্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জনশক্তি বাংলাদেশে নিযুক্ত কাতারের রাষ্ট্রদূত আহমেদ বিন মোহাম্মদ আল-দেহাইমি জানান কাতার সরকার বাংলাদেশ থেকে সকল খাতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জনশক্তি আমদানি করার উদ্যোগ গ্রহণ করতে যাচ্ছে।

শনিবার(৩০ এপ্রিল) দুপুরে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত ‘দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র বোর্ড অব ডাইরেক্টর্স’র সাথে এক মতবিনিময় সভায় বক্তব্যকালে তিনি এই কথা জানান।

এ সময় রাষ্ট্রদূত আরো জানান, তিনি নিজেই বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শনের মাধ্যমে সম্ভাবনাময় খাতসমূহ চিহ্নিত করছেন।

এছাড়া কাতারে বাংলাদেশী শ্রমিকদের বিশেষ প্রাধান্য দিয়ে বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে উল্লেখ করে  তিনি বলেন,  দু’দেশের মাঝে অমীমাংসিত বিষয়সমূহ সমাধানের চেষ্টা চলছে।

রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের নেতৃস্থানীয় চেম্বারসমূহকে এদেশে বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রস্তাবনা ও সুপারিশমালা দূতাবাসে দাখিল করার আহবান জানিয়ে বলেন,  এসব প্রস্তাবনা  সরাসরি কাতার সরকারের বিবেচনার জন্য প্রেরণ করা হবে।

সভায় চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম, ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপি, চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, পরিচালকবৃন্দ মাহফুজুল হক শাহ, জহিরুল ইসলাম চৌধুরী (আলমগীর), মো. অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), এম. এ. মোতালেব, অঞ্জন শেখর দাশ, মোঃ রকিবুর রহমান (টুটুল) ও মো. আরিফ ইফতেখার উপস্থিত ছিলেন।

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম রাষ্ট্রদূতকে স্বাগতঃ জানিয়ে  বলেন, শতবর্ষী চিটাগাং চেম্বার শুধুমাত্র দেশের মধ্যেই নয় আন্তর্জাতিকভাবেও বিভিন্ন চেম্বারের সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত আছে।

বর্তমানে বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত সময় ও পরিবেশ বিরাজমান। তাই বিশেষ করে চট্টগ্রামে নির্মিতব্য দু’টি বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রামের পর্যটন খাতে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে রাষ্ট্রদূতের সহযোগিতা কামনা করেন মাহবুবুল আলম।

সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ শিল্প খাতে কাতারের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে পাট ও পাটজাত দ্রব্য, ঔষধ ও বস্ত্রসহ বিভিন্ন পণ্যের আমদানি বৃদ্ধি এবং কাতারে আরো বেশী মানবসম্পদ নিয়োগের আহবান জানান।

পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে রাষ্ট্রদূতের প্রতি কারিগরি প্রশিক্ষণ ও ভাষা শিক্ষাকেন্দ্র স্থাপনের আহবান জানান।