কেন খাবেন চিয়া বীজ ?

26

দিন দিনই বাড়ছে পুষ্টিগুণের ভাণ্ডার হিসেবে চিয়া বীজের জনপ্রিয়তা । ‘সালিভা হিসপানিকা’নামক উদ্ভিদ থেকে এই বীজ পাওয়া যায়। অনেক খাবারে আজকাল চিয়া বীজ ব্যবহার করা হয়। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবচেয়ে বেশি উপকার পেতে চিয়া বীজ খেতে হবে পানিতে ভিজিয়ে। নিয়মিত চিয়া বীজ খেলে পাওয়া যাবে যেসব উপকারিতা –

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

চিয়া বীজে‘ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড’নামক এক প্রকার অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। এই উপাদানটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

প্রদাহ কমাতে

চিয়া বীজে ‘ক্যাফেইক অ্যাসিড’নামক অপর এক প্রকার অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। এটি প্রদাহ নিরাময়ে বেশ উপযোগী।

হৃৎপিণ্ড ভালো রাখতে

চিয়া বীজ আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড নামক এক প্রকার ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডে ভরপুর। এই ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড হৃৎপিণ্ড ভালো রাখতে সহায়তা করে।

ত্বকের যত্নে

চিয়া বীজে এমন কিছু ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যেগুলো ত্বকের জ্বালা ভাব কমাতে সহায়তা করতে পারে। পাশাপাশি পানিতে ভিজিয়ে খেলে দেহে পানির ঘাটতি দেখা দেওয়ার আশঙ্কাও কিছুটা কমে। ফলে ত্বক শুষ্ক হয় না ।

রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে

সাম্প্রতিক কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতেও কাজে আসতে পারে চিয়া বীজ।

হজমে সহায়তা

চিয়া বীজ হজমে সহায়তা করে। চিয়া বীজে রয়েছে প্রচুর ফাইবার রয়েছে যা মলাশয় পরিষ্কার রাখে। নিয়মিত সেবনে এটি পেট পরিষ্কার করবে, কোষ্টকাঠিন্য দূর হবে।

তবে মনে রাখতে হবে প্রত্যেকের শরীর আলাদা। তাই সব খাবার সবার সহ্য নাও হতে পারে। এ কারণে বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নিয়েই খাওয়া উচিত।