ব্রেকিং নিউজ
Home / ঢাকা / কোনো হাসপাতাল চিকিৎসা দেয়নি করোনার ভয়ে , মৃত্যু ক্যান্সার আক্রান্ত ঢাবি শিক্ষার্থীকে

কোনো হাসপাতাল চিকিৎসা দেয়নি করোনার ভয়ে , মৃত্যু ক্যান্সার আক্রান্ত ঢাবি শিক্ষার্থীকে

সুমন ঢাবির জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী সুমন চাকমা ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষা ও গবেষণা অনুষদে (আই,ই,আর) ভর্তি হন।

অনেকদিন ধরেই তিনি ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। সম্প্রতি ভারত থেকে চিকিৎসাও নিয়ে এসেছিলেন।

কিন্তু গত ২৬ মার্চ আক্ষেপ করে সুমন ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘আমার করোনা হয়নি, অথচ পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে করোনার জন্যেই আমার মারা যেতে হবে।’

অবশেষে সুমনের সেই আক্ষেপই সত্য হলো। আজ সোমবার (৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে আটটার দিকে বিনা চিকিৎসায় মারা গেছেন তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালিয়ের সহপাঠী ও সংশ্লিষ্ট অন্যদের অভিযোগ- সুমন চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে গেলেও করোনা ভাইরাসের ভয়ে তাকে চিকিৎসা দেয়নি কোনো হাসপাতাল। ফলে বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু হলো তার।

ফেসবুকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গ্রুপে সুমনের সহপাঠী এবং অনুষদের সিনিয়র-জুনিয়র, শিক্ষকরা এই নিয়ে আক্ষেপ করে বিভিন্ন পোস্ট করছেন।

সুমনের কি হয়েছিল এই প্রশ্নের জবাবে একজন লিখেছেন, “ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিল। চিকিৎসা করে প্রায় সুস্থই হয়ে গিয়েছিল ,তবে রেগুলার কিছু ট্রিটমেন্ট চলত।
কিছুদিন আগে ওর অবস্থার অবনতি হয় কিন্ত করোনার কারণে গত দুই সপ্তাহে ওকে কোনো হাসপাতালে ভর্তি নেয়নি।এক প্রকার বিনা চিকিৎসাতেই মারা গেছে আজ সকালে।”

আরেকজন ইংরেজীতে লিখেছেন, “ভাই, এই দেশে জন্মিওনা, এই দেশ তোমার প্রাপ্য জায়গা নয়। ভালো হয়, শান্তিতে ঘুমাও।”

“ঢাকায় করোনা ভীতিতে কোন হসপিটাল তাকে ভর্তি নেয় নি অনেকদিন হসপিটালের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়ানোর পর তাকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। ফুসফুসের পানি বেড়ে যাওয়ায় অনেক দিন ধরে তার অসুস্থতা বেড়ে গিয়েছিল।

শেষ পর্যন্ত বিনা চিকিৎসায় মারা যেতে হল”, আরেক ঢাবি শিক্ষার্থীর ফেসবুক পোস্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this:
Skip to toolbar