ক্রেতার অপেক্ষায় ব্যবসায়ীরা খুলেছে নিউমার্কেটের দোকান

13

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সমঝোতার পর আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নিউমার্কেটের দোকান-পাট খোলা শুরু হয়েছে সংঘর্ষ-প্রাণহানি শেষে । খুলেছে এর আশপাশের দোকানগুলোও।

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনায় দুদিন বন্ধ ছিল নিউমার্কেট এবং আশপাশের দোকান। আজ সকাল ১০টার পর থেকে ব্যবসায়ীরা দোকান খুলেছেন।

বুধবার মধ্যরাত থেকে ভোর পর্যন্ত চলা দীর্ঘ বৈঠকে শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা সমঝোতায় পৌঁছালে বৃহস্পতিবার নিউমার্কেট খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এরপর সকালে মার্কেটের চারটি ফটকের মধ্যে তিনটি খুলে দেওয়া হয়।

মার্কেটের এক নিরাপত্তাকর্মী জানান, এক, দুই ও তিন নম্বর ফটক খুলে দেওয়া হয়েছে। চার নম্বর ফটক ভাঙা থাকায় সেটি মেরামতের পর খোলা হবে। সোমবার রাতে ওই ৪ নম্বর ফটক দিয়েই সংঘর্ষের সূচনা হয়।

‘ক্যাপিটাল হোস্টেল’ ও ‘ওয়েলকাম’ নামে দুই খাবারের দোকানের কর্মচারীদের ঝামেলায় ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কিছু কর্মী জড়িয়ে গেলে বিষয়টি বিরাট আকার ধারণ করেছিল সেই রাতে। মঙ্গলবার দিনভর ওই এলাকায় সংঘর্ষ চলে, তাতে আহত হয় অর্ধশতাধিক, পরে দুজনের মৃত্যু হয়।

আজ সকালে নিউমার্কেটের ভেতরে গিয়ে দেখা যায়, ওয়েলকাম ও ক্যাপিটাল হোস্টেল ছাড়া বাকি দোকানগুলো খোলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ‘সোহাগ সুজ’ নামের একটি জুতার দোকানের কর্মচারী বলেন,‘কর্তৃপক্ষ খুলতে বলেছেন তাই খুলেছি, আল্লাহ ভরসা।’

নিউমার্কেট ছাড়াও পাশের চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট এবং অন্য বিপণি বিতানগুলোও খুলতে শুরু করেছে। দোকানিরা ঝাড়ামোছা করে পণ্য গুছিয়ে বসছেন ক্রেতার অপেক্ষায়।

সায়েন্স ল্যাবরেটরি থেকে নিউমার্কেট পর্যন্ত এলাকায় কয়েক ডজন মার্কেটে ১০ হাজারের মতো দোকান রয়েছে। মহামারির ধাক্কা সামলে এবারের ঈদে ভালো বেচাকেনার আশায় ছিলেন ব্যবসায়ীরা, তার মধ্যেই এ সংঘর্ষ অনেককে ক্ষতির মুখে ফেলেছে।