Home / খবর / খালেদা জিয়া ফিরোজায় যেভাবে সময় কাটছে

খালেদা জিয়া ফিরোজায় যেভাবে সময় কাটছে

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শর্ত সাপেক্ষে মুক্তির পর গুলশানের নিজ বাসায় আছেন । সেখানে প্রায় এক মাস ধরে কোয়ারেন্টিনে। চিকিৎসক এবং পরিবারের সদস্য ছাড়া অন্য কারও সঙ্গে দেখা সাক্ষাৎ হচ্ছে না। তবে গণমাধ্যম ও পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে দেশবাসীর খোঁজ খবর রাখছেন। চিকিৎসকদের পরামর্শমেই বিএনপি চেয়ারপারসন নতুন সূচি অনুযায়ি সময় পার করছেন। গত ২৫ মার্চ শর্তসাপেক্ষে ৬ মাসের জন্য মুক্তি পান বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। ওইদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকেই গুলশানের নিজ বাসা ‘ফিরোজায়’ ওঠেন তিনি। ডাক্তারদের পরামর্শে ২৬ মার্চ থেকেই নিজ বাসায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে যান।

গত ৮ এপ্রিল ১৪ দিনের মেয়াদ শেষ হলেও দেশের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে থাকবেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় নির্দিষ্ট কয়েকজন ছাড়া কারো সঙ্গে দেখা করছেন না খালেদা জিয়া।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন সকালে বেগম জিয়াকে দেখতে যান তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা। সন্ধ্যায় দেখতে যান মেঝো বোন সেলিমা ইসলাম। আর সার্বক্ষণিক তার সঙ্গে থাকেন গৃহপরিচারিকা ফাতেমা আর একজন নার্স। বাসায় ফেরার পর নতুন সময়সূচিতে চলছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। নির্দিষ্ট আত্মীয়-স্বজন ছাড়া দেখা করছেন না কারোর সঙ্গে। দলের নেতাদের সঙ্গেও না। বাসায় ফেরার পর নিজের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে নির্দিষ্ট সময়সূচিতে দিন কাটাচ্ছেন তিনি। খাওয়া-দাওয়াও করছেন চিকিৎসকদের পরামর্শে।
খালেদা জিয়া বাসায় বসে তিনি নিয়মিত সংবাদ মাধ্যমে খোঁজ খবর নিচ্ছেন দেশবাসীর। পাশাপাশি বিদেশেরও খবর রাখছেন। এদিকে কোয়ারেন্টিনে থেকেই খালেদা জিয়া রোজা পালন করবেন বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ম্যাডাম এখন কোয়ারেন্টিনেই আছেন। উনি উনার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সঙ্গে পরামর্শ করে চিকিৎসাধীন আছেন এবং এভাবে কোয়ারেন্টিনে থেকে তিনি রমজানের রোজা পালন করবেন। রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুসলিম উম্মাকে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বলেও জানান বিএনপি মহাসচিব। লন্ডন থেকে বড় ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সব কিছু তত্ত্বাবধান করছেন। খালেদা জিয়ার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বেগম জিয়ার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের অন্যতম চিকিৎসক ডা. এ জেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, তার শারীরিক অসুস্থতাটা আগের মতোই আছে। এটা বিভিন্ন কারণে হচ্ছে। হাত-পায়ের ব্যথা আগের মতোই আছে। আজকে হয়ত একটু ভালো থাকে আবার কালকে প্রচন্ড ব্যাথা থাকে। ব্যাথা উপশমের জন্য থেরাপি দেয়া হচ্ছে। উনার ডায়াবেটিস বেশ অনিয়ন্ত্রিত। বিএনপি চেয়ারপারসনের বাসা ‘ফিরোজা’র গেইটে পাহারারত নিরাপত্তা কর্মীরা জানান, বাসায় প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত। শুধুমাত্র চিকিৎসক টিমের সদস্যবৃন্দ ও কয়েকজন নিকট আত্বীয় বাসায় যেতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: