ঘাতক বড় মেয়ে আটক কদমতলীতে বাবা-মা ও বোনকে হত্যা,

25

একই পরিবারের তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ রাজধানীর কদমতলীর মুরাদপুর এলাকায় । শনিবার সকালে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতরা হলেন- মাসুদ রানা (৫০), তার স্ত্রী মৌসুমী ইসলাম (৪৫) ও মেয়ে জান্নাতুল (২০)। তাদের বিষ ও নেশাজাতীয় দ্রব্য পান করিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। হত্যাকারী সন্দেহে এই পরিবারের বড় মেয়ে মেহজাবিনকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ।

এছাড়া মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল ইসলাম (৪০) ও মেয়ে মারজান তাবাসসুম তৃপ্তিয়াকে (৬) অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
কদমতলী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে জানান, কদমতলীর মুরাদপুর এলাকার একটি বাসা থেকে একই পরিবারের তিনজনের মরদেহ হাত পা বাঁধা অবস্থায় পেয়েছি।
গতকালকে রাতে তাদের হত্যা করা হয়েছে। তাদের তিনজনকে পরিবারের বড় মেয়ে মেহজাবিন হত্যা করেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। তাকে আটক করা হয়েছে। বিষ ও নেশাজাতীয় দ্রব্য পান করিয়ে হত্যা করা হয়েছে। রহস্য উদঘাটনে ঘটনাস্থলে রয়েছে পুলিশ।