Home / চট্টগ্রাম / চিত্রনায়ক ফেরদৌসের প্রিয় শহর চট্টগ্রাম

চিত্রনায়ক ফেরদৌসের প্রিয় শহর চট্টগ্রাম

‘চট্টগ্রামের যে কোন কাজে সম্পৃক্ত থাকতে আমার খুব ভালো লাগে চিত্রনায়ক ফেরদৌস বলেছেন,।চট্টগ্রাম আমার খুব প্রিয় শহর। আমার কাছে মনে হয়, বাংলাদেশের সবচেয়ে সুন্দর শহর চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার।’

শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে ‘ইন্সপায়ার চট্টগ্রাম’ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে মেয়েদের বিনামূল্যে আত্মরক্ষার কৌশল শেখানোর কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ফেরদৌস এসব বলেন।

এসময় উদ্বোধকের বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের মানুষ খুব ভালো, ভীষণ বন্ধুবৎসল। আমাকে যখনই যে কোন আয়োজনে ডাকে আমি চলে আসি। আজকেও চলে এসেছি।’

কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী মেয়েদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আত্মরক্ষার কৌশল শেখানোর এ ধরনের কর্মশালা আমাদের শারীরিক সুস্থতার জন্য খুবই প্রয়োজন, দরকারী। এ কর্মশালাটি মনোবল বাড়িয়ে দেবে, কর্মস্পৃহা বাড়িয়ে দেবে, শরীরকে সুস্থ রাখবে। আমার এই উপস্থিতি দিয়ে যদি তোমরা ইন্সপায়ার হও, তোমরা এই কাজটি করবে।’

সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া ধর্ষণের ঘটনা প্রসঙ্গে চিত্রনায়ক বলেন, ‘ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনা আমাদের সারাক্ষণ বেদনাহত করে, পীড়া দেয়। পুরুষ নামধারী বিকৃত মস্তিষ্কের কিছু ব্যক্তি এসব ঘটনায় যুক্ত। তারা নানান সময়ে নানান জায়গায় নারীদের অপমানিত করে, আঘাত করে। বিষয়গুলো ভাবতেও লজ্জা লাগে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই ধরনের কর্মশালার মানে এই নয় যে, নারী তার দৈহিক শক্তি দিয়ে সবকিছুকে প্রতিহত করতে পারবে। এটা করা হয়েছে মেয়েদের আত্মবিশ্বাসী করে তোলার জন্য। একজন মানুষের কাছে যদি আত্মবিশ্বাসটা অটুট থাকে, জোরালো থাকে, তবে সে যে কোন পরিস্থিতিতে নিজেকে সামলে চলতে পারবে।’

ছোটবেলায় মনে আছে, মায়ের চোখ রাঙানি দেখলেই, একসঙ্গে সব ভাই-বোনেরা পড়তে বসতাম। মা কি অনেক বেশী শক্তিশালী ছিল? ছিল না। মায়ের সেই চোখ রাঙানি, মনের জোর, একজন সন্তানকে মানুষে পরিণত করার জন্য যথেষ্ট। সেজন্য এই কর্মশালা আয়োজন ও এ উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ জানাই। আমার খুব ভালো লেগেছে।’

সংগঠনের চেয়ারম্যান প্রাক্তন ছাত্রনেতা সাজ্জাত হোসেনের সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের পরিচালক জাওইদ চৌধুরী ও এম শাহাদাৎ নবী খোকা।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ক্রীড়া সম্পাদক দিদারুল আলম চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চট্টগ্রাম নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, প্রাক্তন কমিশনার ও নারী নেত্রী অ্যাডভোকেট রেহানা বেগম রানু, চিকিৎসক নেতা মিনহাজুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রাক্তন নেতা মাহমুদ সালাউদ্দিন চৌধুরী, বিএসআরএম’র সিএসআর প্রধান তারিকুল কবির প্রমুখ।

আরও ছিলেন- কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসীন, প্রাক্তন ছাত্রনেতা আবুল হাসনাত বেলাল, ফখরুদ্দিন বাবলু, শিবু প্রসাদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইলিয়াস, নারী নেত্রী সোনিয়া আজাদ, সাহেলা আবেদিন হাটহাজারী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তার বেগম মুক্তা, সংগঠনের পরিচালক গোলাম সামদানি জনি, সাদ শাহরিয়ার, ইকরামুল্লাহ চৌধুরী, কামরুজ্জামান সুমন, জাহাঙ্গীর আলম, প্রশিক্ষক জয়জিৎ চৌধুরী ও সুমাইয়া ফাতেমা নাম্মী।

প্রসঙ্গত, নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ‘ইন্সপায়ার চট্টগ্রাম’র এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগে তিন মাসব্যাপী কর্মশালাটিতে ৪১৭ জন নারী অংশ নিচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: