Home / আর্ন্তজাতিক / চীনের অঙ্গীকার মুসলিম দেশগুলোর পাশে থাকার

চীনের অঙ্গীকার মুসলিম দেশগুলোর পাশে থাকার

বেইজিং বৈশ্বিক মহামারি করোনা বা কোভিড-১৯ মোকাবেলায় বাংলাদেশসহ মুসলিম দেশগুলোর পাশে দৃঢ়ভাবে থাকার অঙ্গীকার পূনর্ব্যক্ত করেছে । রমজান উপলক্ষে শুভেচ্ছা বার্তায় রোববার ঢাকাস্থ চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, চীন বরাবরই মুসলিম বিশ্বের পরীক্ষিত এবং বিশ্বস্ত বন্ধু। বর্তমান এই গুরুত্বপূর্ণ মূহুর্তে চীন দৃঢ়ভাবে বাংলাদেশ এবং অন্যান্য মুসলিম দেশগুলোর পাশে আছে।

চীনা চিকিৎসা সরঞ্জাম ও বিশেষজ্ঞ দল ইতিমধ্যে ইরান, ইরাক, সৌদি আরব, সিরিয়া, তিউনিসিয়া, পাকিস্তান এবং আফ্রিকার অন্যান্য মুসলিম দেশে পাঠানো হয়েছে জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, মুসলিম দেশগুলোর উন্নয়নের স্বাধীন পথ অনুসরণে চীন সব সময় সমর্থন করে। রমজান ইসলামি জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তাৎপর্য বহন করে মন্তব্য করে চীনের দূত বলেন, বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী ৫৬টি নৃগোষ্ঠীর একটি গর্বিত জাতির সদস্য হিসাবে আমি জানাতে চাই, চীনে তিন কোটি জনসংখ্যার বিশাল মুসলিম সম্প্রদায়ও রমজান পালন শুরু করেছে। কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠ এবং কার্যকর সহযোগিতা পুরোপুরি চীন এবং ইসলামী বিশ্বের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্কের এক প্রতীক মাত্র। প্রাচীন দুটি সভ্যতা- সপ্তম শতাব্দীর প্রথমদিকে যখন চীনে ইসলামের প্রচলন হয়েছিল তখনই বন্ধুত্বপূর্ণ যোগাযোগে জড়িত হতে শুরু করে। ১৯৪৯ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার পর থেকে, সহযোগিতার বন্ধুত্বপূর্ণ ঐতিহ্য বিশ্বব্যাপী এবং আঞ্চলিক সুরক্ষা, টেকসই উন্নয়ন, জনগণের কল্যাণ এবং পরিবেশ সুরক্ষাসহ সকল ক্ষেত্রে সংরক্ষণ এবং প্রসারিত হয়েছে।

করোনা প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ভাইরাসের কোনো সীমানা নেই। মহামারী জাতি এবং ধর্মের মধ্যে পার্থক্য করে না। প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং বলেছেন, চীনের দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস শুধুমাত্র সংহতি ও সহযোগিতা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় মহামারীর ওপরে জয় লাভ করতে পারে এবং মানবতার এ পৃথিবীকে রক্ষা করতে পারে। এই কথা মাথায় রেখে আমি আবারও আশ্বাস দিচ্ছি চীন বাংলাদেশ ও বিশ্বের সঙ্গে আরো ভালো ভবিষ্যতের জন্য মহামারীটির বিরুদ্ধে একত্রে নিবিড়ভাবে কাজ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: