Home / আর্ন্তজাতিক / ডব্লিউএইচও’র হুঁশিয়ারি ইউরোপে ফের ভয়াবহ হতে যাচ্ছে করোনা

ডব্লিউএইচও’র হুঁশিয়ারি ইউরোপে ফের ভয়াবহ হতে যাচ্ছে করোনা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউরোপে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে বলে সতর্ক করেছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, অঞ্চলটির পরিস্থিতি খুবই মারাত্মক হতে যাচ্ছে। এটিকে ওই অঞ্চলে মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের আগাম সংকেত উল্লেখ করে কড়া সতর্কবার্তা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আঞ্চলিক পরিচালক হ্যান্স ক্লুজ বলেছেন, অঞ্চলটিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকা আসন্ন ভয়াবহতার সংকেত দিচ্ছে।

হান্স ক্লুজ বলেছেন, ইউরোপে গত মার্চে মহামারি যখন প্রথমবার চূড়ায় উঠেছিল, বর্তমানে সাপ্তাহিক সংক্রমণের ঘটনা সেই সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে গেছে। গত সপ্তাহে অঞ্চলটিতে সাপ্তাহিক রোগীর সংখ্যা তিন লাখ ছাড়িয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এ কর্মকর্তা বলেন, ইউরোপের অর্ধেকের বেশি দেশেই গত দুই সপ্তাহে ১০ শতাংশ নতুন রোগী বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মধ্যে সাতটি দেশে নতুন সংক্রমণ বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি।

হান্স ক্লুজ বলেন, গত বসন্তে ও গ্রীষ্মের শুরুতে আমরা কড়া লকডাউনের প্রভাব দেখতে পেয়েছিলাম। আমাদের চেষ্টা, আমাদের ত্যাগের দাম পেয়েছিলাম। জুনে সংক্রমণ ছিল যেকোনও সময়ের চেয়ে কম। কিন্তু সেপ্টেম্বরে সংক্রমণের সংখ্যা দেখে আমাদের সবার সচেতন হওয়া উচিত।

ক্লুজ জানান, সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ইউরোপে ৫০ থেকে ৭৯ বছর বয়সীদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। তবে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে এখনও বেশিরভাগই ২৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সী যুবক।

গত ডিসেম্বরে চীনে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর কিছুদিন পরেই এর দ্বিতীয় হটস্পট হয়ে উঠেছিল ইউরোপ। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসায় মাস দুয়েক আগে অঞ্চলটির বেশিরভাগ দেশই লকডাউন তুলে অর্থনৈতিক কার্যক্রম শুরু করেছে। তবে গত কয়েক সপ্তাহে আবারও আশঙ্কাজনক হারে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বিধিনিষেধ ফিরিয়ে এনেছে বেশ কয়েকটি দেশ।

হান্স ক্লুজ সতর্ক করে বলেন, তরুণদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ বাড়ার প্রবণতা বয়স্ক ব্যক্তিদেরও ঝুঁকিতে ফেলছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বেশ কিছু ইউরোপীয় দেশ তাদের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলে নতুন করে স্থানীয় পর্যায়ে লকডাউন জারি করেছে।

একইসঙ্গে দ্বিতীয় দফায় করোনার ঢেউ আসার আশঙ্কায় থাকা ইউরোপীয় দেশগুলোর কর্তৃপক্ষ নাগরিকদের মাস্ক পরার জন্য নতুন করে আহ্বান জানাচ্ছে। পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ করোনার স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে নাগরিকদের অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: