দুই দিনও মন্ত্রী থাকতে পারবেন না ইসলাম ত্যাগ করলে

25

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনতথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন । গতকাল শনিবার আশুলিয়ায় এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি এই সমালোচনা করলেও আজ রোববার এক সংবাদ বিবৃতির মাধ্যমে তা গণমাধ্যমে পাঠান সাঈদ খোকনের জনসংযোগ কর্মকর্তা হাবিবুল হক সুমন।

সাঈদ খোকন বলেন, সম্প্রতি দেশের একজন প্রতিমন্ত্রীকে (ডা. মুরাদ হাসান) বলতে দেখলাম- ‘আমি রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দিয়ে দেব।’ উনি একজন মুসলমান, আপনি রাষ্ট্রীয় ধর্ম ইসলাম বাদ দিয়ে দেবেন এটা কি আপনার দলীয় ফোরামে আলোচনা করেছেন? আপনি একজন মন্ত্রী, এটা কি মন্ত্রী পরিষদে আলোচনা করেছেন? আপনি একজন সংসদ সদস্য হিসেবে স্থায়ী কমিটিতে আলোচনা করেছেন? কোনো কোরামেই করেন নাই। বলে দিলেন আমি রাষ্ট্র ব্যবস্থা ইসলাম মানি না। এটা কোনো মুসলমানের কাজ হলো? কোনো মুসলমান এটা করতে পারে?

ওই অনুষ্ঠানে সাঈদ খোকন বলেন, ‘রাষ্ট্র তো দূরের কথা, রাষ্ট্র তো অনেক বড় ব্যাপার। বাংলাদেশ ১৭ কোটি মুসলমানের দেশ। আপনার বুকের পাটা থাকলে নিজের নামটি ইসলাম থেকে খারিজের ঘোষণা দিন। কলিজাটা এতই থাকলে বলেন আমি ইসলাম মানি না। বলে খারিজ করে নিন। আপনাকে কে আটকিয়ে রাখছে?

ঢাকা দক্ষিণের সাবেক মেয়র আরও বলেন, ‘নিজেকে মুসলিম দাবি করে ইসলামের বিরুদ্ধে কথা বলবেন এটা দুঃখজনক। ইসলাম থেকে নিজেকে ত্যাগ করে দেখেন দুদিন পরে মন্ত্রিত্ব থাকে কি না? এমপিত্ব থাকে কি না? মনগড়া কথা বলেন? ইসলামবিরোধী কথা বলেন দলের অনুমতি নেন নাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি নেন নাই। এ দায়িত্ব কি দলের? এর দায়ভার কি সরকার নেবে? ইসলামের বিরুদ্ধে কথা বললে এ দেশের মুসলমান তা সহ্য করবে না। আর তাই এদের আমি বলি নামে মুসলমান। কিন্তু ইসলামবিরোধী মানুষ।’