নিহত ১ ক্রিমিয়ায় রুশ বিমান ঘাঁটিতে কয়েক দফা বিস্ফোরণ

19

বিস্ফোরণে অন্তত একজন নিহত হয়েছেন ক্রিমিয়ায় রুশ বিমান ঘাঁটিতে। রাশিয়ার নিয়োগ করা আঞ্চলিক প্রশাসনের প্রধান সের্গেই আকসনভ এই তথ্য জানিয়েছেন। আজ বুধবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সের্গেই আকসনভ লিখেছেন, ক্রিমিয়া উপত্যকার পশ্চিম উপকূলে নভোফেদোরিভকার কাছে স্যাকি বিমান ঘাঁটিতে ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের যেসব ফুটেজ দেখা যাচ্ছে তাত কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটনা চোখে পড়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পরে জানিয়েছে, সেখানে গোলাবারুদ ধ্বংস করা হয়েছে। যদিও এ দাবি নিরপেক্ষ সূত্র থেকে যাচাই করা হয়নি। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা জানিয়েছে গোলাবারুদ সংরক্ষণাগার এলাকার কোথাও কোনো আগুন ধরেনি।

মস্কো ২০১৪ সালে ক্রাইমিয়া দখল করে নিয়েছিল। এলাকাটি রাশিয়ার পর্যটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়।

এই বিস্ফোরণের কয়েকঘণ্টা পর ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার রাতের ভাষণে বলেন, ইউক্রেনের যুদ্ধ ক্রিমিয়া দিয়ে শুরু হয়েছে, এর স্বাধীনতার মধ্যেই শেষ হবে। বিস্ফোরণের উল্লেখ না করে বলেন, ‘ক্রিমিয়া ইউক্রেনের এবং আমরা কখনোই হাল ছাড়ব না।’

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছে স্থানীয় সময় দুপুর ৩টা ২০ মিনিটের দিকে বিস্ফোরণ শুরু হয় এবং কমপক্ষে ১২টি বিস্ফোরণের শব্দ তারা শুনেছেন। একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে কালো ধোঁয়া উড়ছে আর পর্যটকরা সাগর সৈকত ছেড়ে পালাচ্ছেন।

পরে ওই এলাকায় পৌঁছানোর পর মিস্টার আকসনভ বলেন বিস্ফোরণস্থলের আশেপাশের তিন মাইল এলাকা নিয়ে একটি সংরক্ষিত জোন ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের একজন উপদেষ্টা মিখাইলো পদোলিয়াক বলছেন, এই বিস্ফোরণের জন্য কিয়েভ দায়ী নয়।