পর্তুগালের অস্ট্রিয়া মিশন আইসল্যান্ড-দুঃখ পেরিয়ে

4

cristiano-ronaldo-_117010

ঢাকা ১৮ জুন : টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে রাত দশটার ম্যাচে তাদের জিততেই হবে। রুই প্যাট্রিসিও অনুশীলন থেকে ফেরার পথে বারবার বলে গেলেন, আইসল্যান্ডের বিপক্ষে যা হয়েছে তাতে তারা এতটুকু হতাশ নন। পর্তুগাল হতাশ নয়, সেটা মানা যেতেই পারে। তবে চিন্তিত নয়, সে কথা কিন্তু ধোপে টিকবে না।  প্রতিপক্ষ এবার শুরু থেকে বেশ ছন্দবদ্ধ ফুটবল খেলছে। রোনালদোদের চিন্তার বালাই না থেকে পারে না।

আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করে পর্তুগাল। ম্যাচটিতে দলের প্রাণভোমরা রোনালদো বোতলবন্দী ছিলেন। আজও তাকে আটকাতে চাইবে অস্ট্রিয়া।

ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে রোনালদো আসেননি। দলের হয়ে কথা বলে যান প্যাট্রিসিও। বেশ উচ্চবাচ্য করে বললেন অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে প্রথম জয় তুলবেন তারা।

‘যে কোনো কিছুর জন্য আমরা প্রস্তুত। আইসল্যান্ডের ম্যাচটি এখন অতীত। আমরা সামনের ম্যাচ নিয়ে ভাবছি।’

‘আমরা নিজেদের যোগ্যতা জানি। তাই আত্মবিশ্বাসী। শেষ বার ভালো করতে পারিনি। কিন্তু এবার হবে।’

নিজেদের জয়গান গাইলেও প্রতিপক্ষকে নিয়ে সতর্কতার কথা বলতে ভুললেন না ২৮ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক, ‘অস্ট্রিয়া গোছানো দল। কঠিন একটা ম্যাচ হবে।’

পর্তুগালের কোচও ছেলেদের তাতিয়ে রাখতে চাইলেন, ‘এটা একটা কঠিন ম্যাচ। সব খেলোয়াড়কে নিয়ে আমি আত্মবিশ্বাসী। আমরা যা চাই তা করতেই চাই।’

অস্ট্রিয়া এবার গোছানো ফুটবল খেললেও ভুল করছে বেশ। হাঙ্গেরির বিপক্ষে ০-২ গোলের পরাজয়ই সে কথা বলছে। আজকের ম্যাচে আবার দলটি পাবে না অ্যালেক্সান্ডার দ্রাগোভিককে। হ্যাঙ্গেরির বিপক্ষে ৬৬ মিনিটে দুই হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তিনি। দুই হলুদ কার্ড মানে লাল কার্ড। সেক্ষেত্রে ওই খেলোয়াড় পরের ম্যাচও খেলতে পারেন না।

অন্যদিকে পর্তুগালের রিচার্ডো কুয়ারেসমা শুরু থেকে একাদশে থাকতে পারেন। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে বদলি হিসেবে নেমে শেষ ১৪ মিনিট বেশ নজর করেন তিনি।

অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ চার ম্যাচে রোনালদোরা অপরাজিত। একটিতে জয়, তিনটি ড্র। এই প্রথম বড় কোনো টুর্নামেন্টে মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল।

ফিগোর সমান ১২৭টি ম্যাচে মাঠে নেমেছেন এই পর্তুগীজ তারকা। রোনালদো যদি আজ মাঠে নামেন তবে দেশের হয়ে ঐতিহাসিক এক রেকর্ডের মালিক হবেন। লুইস ফিগোকে ছাড়িয়ে পর্তুগালের হয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়বেন তিনি।