প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নির্দেশ হামলার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে

23

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ  সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে । মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে আজ মঙ্গলবার দুপুরে এক বিফ্রিংয়ে এ তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভাপতিত্ব করেন।বৈঠক শেষে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া ঘটনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বেশ কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন। যত দ্রুত সম্ভব অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে বলেছেন।’ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি না করার পাশাপাশি ধর্মীয় নেতাদের এ ব্যাপারে এগিয়ে আসতে প্রধানমন্ত্রী আহ্বান জানিয়েছেন বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, ধর্ম নিয়ে কেউ যাতে বাড়াবাড়ি না করে সেজন্য দেশবাসীকে সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে। কেউ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ধর্ম নিয়ে কিছু লিখলেই সঙ্গে সঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানানো থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘কুমিল্লার ঘটনার তদন্ত হচ্ছে। শিগগিরই প্রকৃত তথ্য বেরিয়ে আসবে। অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে।’

তিনি আরও বলেন, রংপুরের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ ধরনের ঘটনা আর যাতে না ঘটে সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে ও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, কুমিল্লার ঘটনার জের ধরে দেশের অন্যান্য স্থানে পূজামণ্ডপ, মন্দির, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ৭১টি মামলা হয়েছে। এসব ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বিভিন্ন জায়গা থেকে ৪৫০ জনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল সোমবার পুলিশ সদর দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায়।

আরও কিছু মামলা প্রক্রিয়াধীন। আটকের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।