Home / খবর / ফ্লোরার দুঃখ প্রকাশ ভুল তথ্যে !

ফ্লোরার দুঃখ প্রকাশ ভুল তথ্যে !

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দেশে দিন দিন বেড়েই চলছে । বাড়ছে মৃত্যুও। করোনা বিষয়ে প্রতিদিন এসব তথ্য তুলে ধরছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি জানাচ্ছে, বুলেটিনে দেয়া গত বৃহস্পতিবার দিন ভিত্তিক আক্রান্তের সংখ্যার তথ্যে ভুল ছিল। যেটি আজ সংশোধন করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

গত বৃহস্পতিবার আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪১ জন বলা হয়। তা সংশোধন করে আজ বলা শনিবার বলা হয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০৬ জন। এ তথ্য নিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি তৈরির জন্য আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং দুঃখ প্রকাশ করেন।

এছাড়াও বক্তব্যের শুরুতে মোট মৃত রোগীর সংখ্যা ৯২ জন বলেছেন। কিন্তু পরবর্তীতে বলেছেন মোট মৃত্যুর ৮৪ জন। তথ্যের তাৎক্ষণিক ভুলের বিষয়েও তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

শনিবার দুপুরে নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে নিজ বাসা থেকে যোগ দিয়ে মীরজাদী ফ্লোরা বলেন, ‘আমি দুঃখিত। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। সে ক্ষেত্রে মোট মৃত্যু রোগী হবে ৮৪ জন। কিন্তু আমি ৯২ জন বলেছিলাম এজন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আমি আবারো দুঃখ প্রকাশ করছি এবং পরিষ্কার করে বলছি নতুন ৯ জনের মৃত্যু নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৪ জনে।’

এছাড়াও এসময় পূর্বের ভুলভ্রান্তির জন্যও দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

সেব্রিনা ফ্লোরা আরো বলেন, আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, গত তিনদিন আমরা যেসব রোগীর কথা বলছি সেটা আমাদের পরীক্ষার প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে। এখানে একদিনের তথ্য পেন্ডিং ছিল। ১৬ এপ্রিলের (বৃহস্পতিবার) আক্রান্তদের তথ্যের সঙ্গে কিছু আক্রান্তের তথ্য ছিল ১৫ তারিখের। সেটাকে আমরা নতুন তারিখ অনুযায়ী বিভাজন করেছি। নতুন বিভাজন করার পর আমরা এটাকে সংশোধন করেছি।

এই সংশোধনী আনায় সর্বোচ্চ সংখ্যক শনাক্তের সংখ্যাটি এখন আজকের বলেও জানান তিনি। ফলে আক্রান্তের সংখ্যাটি গত ১৬ এপ্রিল ৩৪১ জন বলা হলেও সেটা সংশোধন করে ২৯২ জন করা হয়েছে। আর সংশোধনের কারণে ১৫ এপ্রিলের আক্রান্তের সংখ্যা ২১৯ থেকে বেড়ে হয়েছে ২৬৮। তথ্যটি আইইডিসিআর’র ওয়েবসাইটেও আপডেট করা হয়েছে।

তবে এরকম ভুল বিভ্রান্তি এর আগেও হয়েছে। আইইডিসিআরের ওয়েবসাইটে জেলাভিত্তিক হিসেবে দুইদিন নানা রকম ভুল ভ্রান্তি পাওয়া গেছে।

এছাড়াও এর আগেও স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা নিয়ে এক রকম তথ্য দিয়েছেন ভিন্ন রকম তথ্য দিয়েছে আইইডিসিআর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: