‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক পাচারকারী নিহত নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে

9

দুই রোহিঙ্গা মাদক কারবারী নিহত হয়েছে মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তের ৪০ নম্বর পিলার এলাকায় বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে। এ সময় এক লাখ পিস ইয়াবা, দুইটি অস্ত্র ও ৪ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। আজ সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেন কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ। নিহতরা হলেন কক্সবাজার উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের ক্যাম্প-১ এর ডি ব্লকের বাসিন্দা ফোরকান মাহমুদের ছেলে মোহাম্মদ জুবায়ের (২৬) ও লম্বাশিয়া ক্যাম্পের বি ব্লকের বাসিন্দা হামজা মিয়ার ছেলে দীল মোহাম্মদ (২৪)। বিজিবি সূত্রে জানা যায়, সোমবার ভোররাতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের ৪০ নম্বর পিলারের গর্জনবনিয়া এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশকালে বিজিবি সদস্যরা চ্যালেঞ্জ করে। এরপর বিজিবিকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালায় মাদক কারবারিরা। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি চালালে পালিয়ে যায় কারবারিরা। পরে ঘটনাস্থলে এ দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়।

তাদের উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ বলেছেন এ ঘটনায় দুই বিজিবি সদস্যও আহত হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে তিন কোটি টাকা মূল্যের এক লাখ পিস ইয়াবা, দুইটি অস্ত্র ও কার্তুজ।