Home / প্রশাসন / বাংলাদেশ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সঙ্গে খেলাধুলাতেও এগিয়েছে: আইজিপি

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সঙ্গে খেলাধুলাতেও এগিয়েছে: আইজিপি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুবিকশিত শাসনামলে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সঙ্গে বাংলাদেশ খেলাধুলাতেও এগিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

জয়তু শেখ হাসিনা ইন্টারন্যাশনাল অনলাইন চেস টুর্নামেন্ট ২০২০ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে আইজিপি একথা বলেন।

বেনজীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাষ্ট্রনায়কোচিত সুদৃঢ় ও সুবিকশিত নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ বিশ্বের ইতিহাসে শুধুমাত্র অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির দিক দিয়েই এগিয়ে যাচ্ছে না; এগিয়ে যাচ্ছে খেলাধুলার দিক দিয়েও।’

দাবা খেলার বুদ্ধিবৃত্তিক বিষয় নিয়ে আইজিপি বলেন, একটি মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন জাতি গঠনে খেলার জগতে দাবা খেলা বর্তমান নেতৃত্বের মাধ্যমে ইতিমধ্যেই এক অনন্য অধ্যায়ে পরিণত হয়েছে।

ঢাকার লা মেরিডিয়ান হোটেলে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ চেস ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. চৌধুরী নাফিস শরাফতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার জনাব মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম ও বাংলাদেশ চেস ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান চেস ফেড়ারেশনের প্রেসিডেন্ট শেখ সুলতান বিন খালিদ আল নাহিয়ান, সেক্রেটারি জেনারেল হিশাম আল তাহের, সাউথ এশিয়ান চেস ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি লাক্সমান ইজোসুরিয়া।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, আমরা ইতিমধ্যেই বিশ্ব ক্রীড়া জগতে ক্রিকেটসহ অন্যান্য খেলার মাধ্যমে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করতে পেরেছি। আমি খুব দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ফেডারেশনের সভাপতি ড. বেনজীর আহমেদের মত ডায়নামিক, গতিশীল ও ব্রিলিয়ান্ট নেতৃত্বে দাবা খেলা অনতিবিলম্বেই একটি জনপ্রিয় ও বিকশিত খেলায় পরিণত হবে।

এসময় আইজিপির অনুরোধের প্রেক্ষিতে তিনি শিগগির দাবা ফেডারেশনের জন্য একটি স্থায়ী জায়গার বন্দোবস্ত করার আশ্বাস দেন।

‘জয়তু শেখ হাসিনা ইন্টারন্যাশনাল অনলাইন চেস টুর্নামেন্ট ২০২০’ এ ৩৪ জনকে পুরস্কৃত করা হয়। ইন্দোনেশিয়ার গ্র্যান্ডমাস্টার মেগরানত সুশান্ত উক্ত টুর্নামেন্টে প্রথম স্থান অর্জন করেন। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন ভারতের গ্র্যান্ডমাস্টার সুনীল নারায়ন। ইরানের মোহাম্মদ আমিন তাবাতামি ওই টুর্ণামেন্টে তৃতীয় স্থান অর্জন করেন। টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করা বিজয়ী ১৯ জনকে পুরস্কৃত করার পাশাপাশি বাংলাদেশের ১৫ জন দাবা খেলোয়াড়কে আইজিপি’র পক্ষ থেকে বিশেষ প্রণোদনা ও পুরস্কার দেয়া হয়।

বাংলাদেশ ও বিদেশ থেকে অনলাইনে সংযুক্ত অতিথি ও বক্তারা দাবা খেলা নিয়ে বাংলাদেশের এমন উৎসবমুখর আয়োজনের ভূয়ষী প্রশংসা করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন, খেলার জগতে বাংলাদেশের দাবা খেলোয়াড়রা শুধু দেশেই নয়, বিদেশেও যোগ্যতা ও দক্ষতার স্বাক্ষর রাখবেন।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও সুদীর্ঘ জীবন এবং দীর্ঘস্থায়ী নেতৃত্ব কামনা করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনের উদযাপনে আয়োজিত এ টুর্নামেন্টে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গ্র্যান্ডমাস্টারসহ দেশ-বিদেশের ৭৪ জন দাবাড়ু অংশ নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: