Home / অর্থ-বাণিজ্য / বাংলাদেশ ‘বিবি মাইনাস’ পেল ফিচের রেটিংয়ে

বাংলাদেশ ‘বিবি মাইনাস’ পেল ফিচের রেটিংয়ে

আন্তর্জাতিক ঋণমান নির্ণয়কারী সংস্থা ‘ফিচ’ বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ঋণমানকে ‘বিবি মাইনাস’ হিসেবে অভিহিত করেছে । এর অর্থ হলো দেশীয় ও আন্তর্জাতিক মুদ্রায় ঋণ গ্রহণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান স্থিতিশীল।

আজ মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ওয়েব সাইটে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এর আগে রোববার ফিচের পক্ষ থেকে এ তথ্য দেয়া হয়। এর আগেও একাধিকবার বাংলাদেশকে এ মান দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে ফিচের এ ঋণমান নির্ণয়ের ক্ষেত্রে করোনার প্রভাব বিবেচনায় নেয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

আন্তর্জাতিক ঋণমান নির্ণয়কারী সংস্থা ফিচের প্রতিবেদনে উল্লেখিত বেশিরভাগ তথ্য গতবছরের শেষ দিকের। এতে স্থিতিশীল ঋণমানের অন্যতম কারণ হিসেবে ভালো জিডিপি প্রবৃদ্ধি এবং স্বস্তিদায়ক বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের কথা তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া বৃহৎ ও তরুণ জনসংখ্যার দেশ হিসেবে তুলনামূলক কম মজুরি দিয়ে কাজ করানোর সুযোগ এবং সম্প্রতি বছরগুলোতে সময় মতো ঋণ পরিশোধের কথা বলা হয়েছে।

খারাপ দিকের অন্যতম হিসেবে দুর্বল ব্যাংক খাতের কথা উঠে এসেছে। বিশেষ করে ব্যাংক খাতে সুশাসনের ঘাটতির কারণে নানা কেলেঙ্কারি এবং উচ্চ খেলাপি ঋণের কথা তুলে ধরা হয়েছে। আর ব্যবসায়ীক পরিবেশের দুর্বল অবস্থা, রাজনৈতি ঝুঁকির কথা উঠে এসেছে। এছাড়া রফতানি প্রবৃদ্ধিতে ধীর গতি, রাজস্ব আদায়ে খারাপ অবস্থার কারণে বাজেট ঘাটতিসহ নানা দুর্বলতা তুলে ধরেছে সংস্থাটি।

সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি অর্থবছরের বাজেটে সরকারের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৮ দশমিক ১০ শতাংশ ধরা হলেও ফিচ পূর্বাভাস দিয়েছে ৭ দশমিক ৫০ শতাংশ। আর আগামী অর্থবছর তা ৭ দশমিক ২০ শতাংশ হবে। যদিও করোনার প্রভাবের ফলে বাংলাদেশ ব্যাংক মনে করে চলতি অর্থবছরে দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ১২ শতাংশের মতো অর্জিত হতে পারে। প্রতিবেদনে গতবছরের নভেম্বরের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের তথ্য উল্লেখ করে এটিকে স্বস্তিদায়ক বলা হয়। তখন রিজার্ভ ছিল ৩১ দশমিক ৭০ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে রিজার্ভ ৩৪ দশমিক ৩১ বিলিয়ন ডলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: