বাতিলের সুপারিশ কালো টাকা সাদা করার সুযোগ

43

এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্ল্যাটফরম কালো টাকা সাদা করার অনৈতিক, উন্নয়ন ও সাম্যবিরোধী সুযোগ আগামী অর্থবছরে বহাল না রাখার জোর সুপারিশ করেছে । এটি বন্ধে সামজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়।

আজ ‘কালো টাকা সাদা হচ্ছে: অর্থনীতির লাভ না ক্ষতি’ শীর্ষক আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনায় সংগঠনটির আহ্বায়ক ড. দেবপ্রিয় ভট্টচার্য এই সুপারিশ করেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ আবদুল মজিদ। এতে কালো টাকার উৎস বন্ধের নানা উদ্যোগ তুলে ধরেন তিনি।

ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রহমান জানান, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে কালো টাকা মাত্র ৭ শতাংশ থাকলেও ২০১১ সালে তা বেড়ে হয়েছে ৬২.৭৫ শতাংশ। এর পরিমাণ এখন আরো বেড়েছে।

রীতি ভেঙ্গে কালো টাকা সাদা করার সাংবিধানিক ও নীতি পরিপন্থী বিধানের বিপক্ষে নানা যুক্তি তুলে ধরেন আলোচকরা।

সিপিডির চেয়ারম্যান রেহমান সোবহান ক্ষমার নামে নামমাত্র কর দিয়ে অবৈধ অর্থ বৈধ না করার সুযোগ বন্ধের পরামর্শ দেন।

আবাসন খাতে দেয়া কালো টাকা সাদা করার সুযোগ পক্ষান্তরে কালো টাকা বাড়াচ্ছে, যা দুশ্চিন্তার বিষয় বলে উল্লেখ করেন প্রতিষ্ঠানটির ফেলো ড. মোস্তাফিজুর রহমান।