বাহারি ইফতার পাঁচ তারকা হোটেলে

3

sonargaon_116273_0

sharif-22_116273_1

ঢাকা ১২ জুন : রবিবার রাজধানীর কয়েকটি পাঁচ তারকা হোটেল ঘুরে দেখা যায়, এক হাজার থেকে চার হাজার টাকা পর্যন্ত ইফতারের প্যাকেজ রয়েছে পাঁচ তারকা হোটেলগুলোতে।ঐতিহ্য আর আভিজাত্যের সঙ্গে ভিন্ন ভিন্ন আইটেমের সংমিশ্রনে বাহারি রকমের ইফতার সামগ্রীতে মেনু তৈরি করেছে দেশের পাঁচ তারকা হোটেলগুলো। মুখরোচক ও সুস্বাদু এসব আইটেমের দামও অবশ্য বেশি। ধনী শ্রেণীর লোকদের প্রতিদিনের ইফতার আসে এসব হোটেল থেকেই। পার্সেল ও ইফতার পার্টির ব্যবস্থা থাকা হোটেলগুলোতে অবশ্য প্যাকেজ আইটেমই বেশি। জাফরানি কসবা রাইচ, চিকেন সাসলিক, পনির সামবোসিক ও ফলের জুসসহ নানা ধরনের আইটেম থাকে এসব প্যাকেজে।
ঢাকার জনপ্রিয় পাঁচ তারকা হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও। পবিত্র রমজান উপলক্ষে তাদের ইফতারের বিশেষ আয়োজন রয়েছে। নিজস্ব রাঁধুনি দ্বারা তৈরি তাদের ইফতার আইটেম বেশ সুস্বাদু ও মুখরোচক। এর মধ্যে চিকেন সমুচা, চিকেন টিক্কা রোল, চিকেন চাউমিন, মোগলাই পরোটা, চিকেন উইংস, স্পাইসি চিকেন, পুডিং, গরু-খাসি-ভেড়ার মাংসের চপ, চিকেন সাসলিক, গরু ও খাসির মাংসের বার্গার, আলু ও মাছ দিয়ে তৈরি কাটলেট, চানাভুনা, পেঁয়াজু, আলুর কিমা চপ ও সবজির পাকোড়াসহ নানা ধরনের খাবার রয়েছে।

এছাড়া ইফতার মেন্যুতে রয়েছে নানা পদের শরবতও। বুফের খরচ পড়বে জনপ্রতি ২৯০০ টাকা। হালিমের ছোট হাঁড়ির দাম ১২০০ টাকা, আর বড় হাঁড়ি ২২০০ টাকা। হাফ কেজি স্পেশাল জিলাপি ৮০০ টাকা এবং এক কেজি জিলাপি ১৪০০ টাকা। এ হোটেলে আরও পাওয়া যাবে ২২০০ টাকায় স্পেশাল ইফতার বক্স।

হোটেল সোনারগাঁও থেকে ইফতার কিনেছেন সালাউদ্দিন আহমেদ। এই মোটর পার্টস ব্যবসায়ী ঢাকাটাইমসকে বলেন, স্বাদে কিছুটা ভিন্নতা আনার জন্য আজ এখান থেকে ইফতার কিনলাম। চকবাজার ও বেইলি রোডের ইফতার থেকে এখানকারগুলো বেশ ভালোই।

হোটেল রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনেও রয়েছে নানা ধরনের ইফতার আইটেম। তবে সুস্বাদু অ্যারাবিয়ান আইটেমের জন্য বেশ জনপ্রিয় এ হোটেলটি। বৈচিত্রময় খাবারের মধ্যে রয়েছে- হারিরা স্যুপ, পনির সামবোসিক, চিকেন খাবসা, মোতাবেল, ফাট্টুস, বাবাগ্যানাস, লাবানি, ল্যাম্প ট্যাং সালাদ, ফালাফেল, খৌজি, শিক টাওক, জো জো কাবাব, বাসবুসা, ওমালি, বাকলাভা ও চাবেকিয়াসহ নানা আইটেম। এছাড়াও রয়েছে স্পেশাল স্যুপ, নানারকম সালাদ, পাকোড়া, স্প্রিং রোল, চিকেন রোল, খাসির হালিম, শিক কাবাব, জালি কাবাব, বঁটি কাবাব, রেশমি কাবাব, পটেটো চপ, নার্গিস কোপ্তা, ল্যাম্ব কোপ্তা, ফিশ কাটলেট, বিরিয়ানি, মিক্সসড ফ্রুট ককটেল, চিকেন উইংস, ফিশ ফিংগার, ফুসকা, চাপাতি, ফালুদা, লাচ্ছি, ছানা মাসালা, দইবড়া, ভেজিটেবল টিক্কা, হালুয়া পুরি, জিলাপি, রসমালাই, শাহি জর্দা, তাজা ফলসহ বিভিন্ন আয়োজন। সব মিলিয়ে দাম পড়বে ৩৮৫০ টাকা। গ্রাহকদের জন্য রয়েছে বাই ওয়ান গেট ওয়ান কমপ্লিমেনটারি অফার।

একটু ভিন্ন রকমের ঐতিহ্যবাহী ও মজাদার আইটেম নিয়ে ইফতার মেনু তৈরি করেছে হোটেল লা মেরিডিয়ান। দেশীয় খাবারের পাশাপাশি থাকছে আন্তর্জাতিক মানের খাবারের ব্যবস্থা। সব মিলে খরচ পড়বে ৪৯০০ টাকা। হোটেলটিতে আরও থাকছে ২৭০০ টাকায় স্পেশাল সেহরির আয়োজন।

হোটেল লা মেরিডিয়ান থেকে প্রতি দিন ইফতার নেন ধানমন্ডির আক্তারুজ্জামান চৌধুরী। তিনি বলেন, এখানকার খাবারগুলো বেশ সুস্বাদু, বাসায় সবাই পছন্দ করে। মুখরোচক আর স্বাস্থ্যসম্মত মশলাযুক্ত খাবারের চমৎকার আয়োজন রয়েছে এ হোটেলে।

দেশি-বিদেশি আধুনিক খাবারের পাশাপাশি বেশকিছু প্যাকেজ ইফতারি মিলবে সেভেনহিল রেস্টুরেন্টে। ফ্রুটস মালাই, আমড়া-কামরাঙার জুস, হালিম, দইবড়া, আলু বোখারার চাটনি, আমড়া-কাঁচা আমের সালাদ, বিফ মালাই কোফতা, বিফ তেহারিসহ থাকছে বিশেষ বুফে ইফতারি। দাম পড়বে ৬৫০ টাকা। এছাড়া ২৫০ থেকে ৫৬৯ টাকায় মিলবে ইফতারের বক্স প্যাকেজ। আলাদা করে শাহি হালিম, দইবড়া, বিফ তেহারি ও রেশমি চিকন জিলাপিও কেনা যাবে।

মুখরোচক আর স্বাস্থ্যসম্মত মশলাযুক্ত খাবারের চমৎকার আয়োজন রয়েছে হোটেল রিজেন্সিতেও। নানারকম মুখরোচক খাবারের পাশাপাশি থাকছে আনারস বা পেঁপের শরবত, ফ্রেশ লেমুনেড এবং পানি। সঙ্গে বাঙালি ছোলা, পিঁয়াজু, বেগুনি, শাহী হালিম, রেশমি জিলাপিসহ আরও অনেক কিছু। ৩০ থেকে ৩২টি খাবারের পদ নিয়ে সাজানো এই বুফের জনপ্রতি খরচ পড়বে ১৯৭৫ টাকা। এছাড়া থাকছে ১৪০০ টাকায় চিকেন রোস্ট। থাকছে প্রতি কেজি ১২০০ টাকা মূল্যে স্পেশাল জিলাপি। এ ছাড়াও থাকছে ১০ থেকে ১২ জনের গ্রুপ ইফতারের ব্যবস্থা। এই আয়োজনের মধ্যে আছে অ্যারাবিয়ান স্টাইলে রান্না করা আস্ত ল্যাম্ব। সঙ্গে থাকছে জাফরানি কসবা রাইস, মুরগি রোস্ট।