বিএনপি দেশের মানুষকে স্বপ্ন দেখাতে চায়

260

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নতুন করে স্বপ্নপূরণের জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে ‘আমরা দেশের মানুষকে স্বপ্ন দেখাতে চাই। প্রতিটি মানুষকে মূল্যায়ন করতে চাই। প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধার সম্মান এবং শ্রদ্ধা করতে চাই। তাই আসুন ৫০ বছর পরে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে নতুন করে স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে কাজ করি।’

সোমবার বিকালে গুলশান লেকশো হোটেল স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বিএনপির পক্ষ থেকে নেয়া বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের ব্যাপারে সরকারের সিদ্ধান্তের ব্যাপারেও কথা বলেন মির্জা ফখরুল। বিএনপির মহাসচিব বলেন, আপনার জানেন এই সরকার সম্পূর্ণ অবৈধভাবে জিয়াউর রহমান খেতাব বাতিলের চেষ্টা করছে। কিন্তু তারা জানে না ইচ্ছা করলে এ খেতাব বাতিল করা সম্ভব না।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, খালেদা জিয়া দেশের গণতন্ত্র উদ্ধারের জন্য তিন বার কারাভোগ করেছেন। তাছাড়া এই সরকারের আমলে অসংখ্য নেতা-কর্মী কারাগারে। পিন্টুর মত অনেকে কারাগারে মৃত্যুবরণও করেছেন। বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, এদেশে কোনো সংবিধান নাই‌। ভোটের অধিকার নাই, ভোটারবিহীন নির্বাচন চলে। ভোট ডাকাতি করে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসেছে।

ফখরুল বলেন, এই সরকারের আমলে জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষা ভেঙে ফেলা হয়েছে। আমরা দেশের মানুষকে স্বপ্ন দেখাতে চাই। প্রতিটা মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান এবং শ্রদ্ধা করতে চাই। দেশের প্রতিটি মানুষকে আমরা মূল্যায়ন করতে চাই। আসুন ৫০ বছর পরে আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে নতুন করে স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে কাজ করি।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশারফ হোসেন, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ড. আব্দুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ উদ্দিন, ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর বীর উত্তমসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।