বিখ্যাত ডারউইন তোরণ পাথর ক্ষয় হয়ে ভেঙে পড়েছে

114

বিখ্যাত ডারউইন তোরণ ভেঙে পড়েছে । লাতিন আমেরিকার দেশ ইকুয়েডরের পরিবেশ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, প্রাকৃতিক কারণেই এটির পাথর ক্ষয় হয়ে ভেঙে পড়েছে। ভেঙে যাওয়ার পর সেখানকার ছবি এরইমধ্যে অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে, প্রশান্ত মহাসাগরের গ্যালাপাগোস দ্বীপপুঞ্জের সবচেয়ে উত্তরের দ্বীপটির কাছে অবস্থিত এই প্রাকৃতিক স্থাপনার এখন কেবল দুই পাশে দুটি থাম অবশিষ্ট রয়েছে। দ্বীপটি দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশ থেকে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

ডয়েচে ভেলের খবরে জানানো হয়, এই স্থাপনাটির কাছে পর্যটকরা সামুদ্রিক কচ্ছপ, হাঙ্গর, মন্টা রে এবং ডলফিন দেখার জন্য সমুদ্রের নিচে ডাইভ করেন। ডাইভিং ওয়েবসাইট স্কুবা ডাইভার লাইফ জানিয়েছে, তাদের একটি নৌকায় থাকা ডাইভাররা সোমবার মধ্য দুপুরের দিকে স্থাপনাটির একটি অংশ ভেঙে পড়তে দেখেন। তবে কোনো ডাইভার এ ঘটনায় আহত হননি।

মানব ইতিহাসের সব থেকে বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের একজন চার্লস ডারউইন ১৮৩৫ সালে এই দ্বীপপুঞ্জ ভ্রমণ করেন। সেখানে তিনি এমন সব প্রজাতির প্রাণীর দেখা পান যা পৃথিবীর অন্য কোথাও পাওয়া যায় না।
গ্যালাপাগোসের প্রাণিজগৎ নিয়ে গবেষণার পর মহান এই বিজ্ঞানী তার বিখ্যাত ‘প্রাকৃতিক নির্বাচন তত্ত্ব’ প্রকাশ করেন। ১৯৭৮ সালে এলাকাটিকে প্রাকৃতিক বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকাভুক্ত করে ইউনেস্কো। ২৩৪টি ছোট-বড় দ্বীপ মিলিয়ে এই দ্বীপপুঞ্জ গঠিত। এইসব দ্বীপের কেবল চারটিতে ৩০ হাজারের কাছাকাছি মানুষের বাস রয়েছে। দ্বীপপুঞ্জের পাশে তিন মহাসাগরের মিলনস্থলের জীববৈচিত্র্যকে ‘জীবন্ত জাদুঘর ও বিবর্তনের প্রদর্শনী’ আখ্যা দেয়া হয়েছে ইউনেস্কোর ওয়েবসাইটে।